x

এইমাত্র

  •  ২৮ এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউনের মেয়াদ বাড়িয়েছে সরকার
  •  করোনাভাইরাসে একদিনে রেকর্ড ১১২ জনের মৃত্যু
  •  ১৭ মে থেকে সৌদি আরবে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চালুর ঘোষণা
  •  সাতদিনের রিমান্ডে হেফাজত নেতা মামুনুল হক

আমরা আইএস'র লোক, এ বিচার আমরা মানি না

প্রকাশ : ২৭ নভেম্বর ২০১৯, ১৪:১৫

সাহস ডেস্ক

গুলশানের হোলি আর্টিজান বেকারিতে ভয়াবহ জঙ্গি হামলার মামলায় সাত জঙ্গির মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। খালাস পেয়েছেন একজন। রায় ঘোষণার পর কারাগারে নেওয়ার সময় ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত জঙ্গিরা নিজেদের আইএস‘র লোক দাবি করেন।

বুধবার (২৭ নভেম্বর) ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ মজিবুর রহমান এ রায় দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- জাহাঙ্গীর আলম ওরফে রাজীব গান্ধী, রাকিবুল হাসান রিগান, রাশেদুল ইসলাম ওরফে র‌্যাশ, সোহেল মাহফুজ, হাদিসুর রহমান সাগর, শরিফুল ইসলাম ও মামুনুর রশিদ।

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্তরা নিজেদের আইএস‘র লোক দাবি করে বলেন, আমরা আইএস'র লোক। আমরা খেলাফত প্রতিষ্ঠার জন্য লড়াই করেছি। আমাদের সঙ্গে আল্লাহ আছে। এ বিচার আমরা মানি না।

এদিকে আট আসামির মধ্যে দুইজনের মাথায় জঙ্গি সংগঠন আইএস’র টুপি পরিহিত ছিলেন। যা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলছে সমালোচনা। অনেকেই প্রশ্ন তুলছেন, কীভাবে কারাবেষ্টনীর মধ্যে তার মাথায় এই টুপিটা এসেছে?

এই ব্যাপারে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী সংবাদমাধ্যমকে বলেন, রিগ্যানের মাথায় আইএসের টুপি এল কীভাবে- তদন্ত করা প্রয়োজন।

এই মামলার রায়ের পর্যবেক্ষণে আদালত বলেন, আন্তর্জাতিক জঙ্গি সংগঠন আইএসআইয়ের বাংলাদেশ অস্থিত্ব জানান দেওয়ার জন্য জঙ্গিরা গুলশানের হোলি আর্টিজান বেকারিতে ভয়াবহ হামলা চালায়। এই হামলার প্রধান পরিকল্পনাকারী ছিলেন তামিম চৌধুরী। তাদের উদ্দেশ্য ছিল জননিরাপত্তা বিপন্ন করা।

রায় ঘোষণার পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় আসামি পক্ষের আইনজীবী দোলোয়ার হোসেন বলেন, রায়ে আমরা সংক্ষুব্ধ। সাক্ষীদের নিয়ে আমাদের সন্দেহ আছে। এ রায়ের বিরুদ্ধে আমরা উচ্চ আদালতে যাব।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত