x

এইমাত্র

  •  এসএসসি-সমমানে পাসের হার ৮২ দশমিক ৮৭ শতাংশ
  •  করোনায় সারা বিশ্বে মৃতের সংখ্যা ৩ লাখ ৭১ হাজার ২৩ জন
  •  করোনায় বিশ্বজুড়ে আক্রান্ত ৬১ লাখের অধিক, সুস্থ হয়েছেন ২৭ লাখেরও বেশী
  •  করোনা পরিস্থিতি অনুকূলে না আসা পর্যন্ত এইচএসসি পরীক্ষা নয়
  •  করোনাভাইরাসঃ বাংলাদেশে রেকর্ড ৪০ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২৫৪৫

২য় বিশ্বযুদ্ধের পর সবচেয়ে বড় সংকটে বিশ্ব: জাতিসংঘ

প্রকাশ : ০১ এপ্রিল ২০২০, ১৪:০২

সাহস ডেস্ক

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর বিশ্বব্যাপী মহামারি আকার ধারণ করা করোনাভাইরাসকে সবচেয়ে বড় সংকট হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস। জাতিসংঘপ্রধান সতর্ক করেছেন, করোনাভাইরাস মহামারি বিশ্বকে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর থেকে সবচেয়ে মহাসংকটে ফেলেছে। খবর বিবিসি।

করোনাভাইরাসের কারণে আর্থ-সামাজিকের ওপর সম্ভাব্য প্রভাব নিয়ে এক প্রতিবেদন প্রকাশকালে তিনি আরও বলেন, এটা মন্দা নিয়ে আসতে পারে। সাম্প্রতিক অতীতে যার কোনো তুলনা নেই। নতুন এই করোনাভাইরাস রোগ সমাজের একদম কেন্দ্রে আঘাত করছে, অনেক প্রাণহানি ঘটানোর সাথে সাথে জীবন-জীবিকাও কেড়ে নিচ্ছে। জাতিসংঘ প্রতিষ্ঠিত হওয়ার কোভিড-১৯ নিয়ে আমরা এখন সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়েছি।

এ সময় জাতিসংঘ প্রধান ‘সংক্রমণ দমন ও মহামারিটি শেষ করার জন্য’ সারা বিশ্বের কাছে তাৎক্ষণিকভাবে সমন্বিত স্বাস্থ্য পুনরুদ্ধার পরিকল্পনা নেয়ার আহ্বান জানান। পাশাপাশি শিল্পন্নোত দেশগুলোকে স্বল্প উন্নত ও অনুন্নত দেশগুলোকে, যেখানে করোনাভাইরাসের মহামারি ছড়িয়ে পড়েছে, সেখানে সহায়তারও আহ্বান জানান গুতেরেস।

গুতেরেস বলেন, ইউরোপে করোনার সংক্রমণে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলো এক দিনে তাদের সর্বোচ্চসংখ্যক মৃত্যুর খবর দিয়েছে।

আল–জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, গতকাল মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রে এক দিনে ৮০০ জনের মৃত্যু হয়েছে, যা দেশটিতে মোট মৃত মানুষের সংখ্যা ৩ হাজার ৭০০–তে পৌঁছে দিয়েছে। সবচেয়ে বেশি মানুষ আক্রান্ত হওয়ার ঘটনাও এখন যুক্তরাষ্ট্রে। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এর উৎপত্তিস্থল চীনে মারা গেছে ১ হাজার ২৮২ জন।

স্পেন, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স ও ইতালি মহামারি শুরুর পর থেকে এক দিনে তাদের সর্বোচ্চ মৃত্যুর ঘটনা জানিয়েছে। ইতালিতে এ পর্যন্ত ১২ হাজার ৪২৮ জন মারা গেছে। বিশ্বের সবচেয়ে বেশি মৃত্যুর ঘটনা ইতালিতে।

জাতিসংঘের সাম্প্রতিক এক প্রতিবেদন অনুসারে, করোনাভাইরাসের কারণে বিশ্বব্যাপী আড়াই কোটি মানুষ বেকার হয়ে যেতে পারে বা চাকরি হারাতে পারে।

প্রসঙ্গত, বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে বুধবার পর্যন্ত বিশ্বে প্রাণহানির সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪২ হাজার ১৫১ জনে। বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের সর্বশেষ পরিসংখ্যান জানার অন্যতম ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, নভেল করোনাভাইরাসে এ পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন বিশ্বের ৮ লাখ ৫৮ হাজার ৬৬৯ জন। এদের মধ্যে বর্তমানে ৬ লাখ ৩৮ হাজার ৪১৯ জন চিকিৎসাধীন এবং ৩২ হাজার ৮৯৮ জন (৫ শতাংশ) আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছেন।

এছাড়া করোনাভাইরাস আক্রান্ত ২ লাখ ২০ হাজার ২৫০ জনের মধ্যে ১ লাখ ৭৮ হাজার ৯৯ জন (৮১ শতাংশ) সুস্থ হয়ে উঠেছেন এবং ৪২ হাজার ১৫১ জন (১৯ শতাংশ) রোগী মারা গেছেন।

গত বছরের ডিসেম্বরের চীন থেকে উৎপত্তি হওয়া প্রাণঘাতি করোনাভাইরাস বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২০২টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত