সেন্টমার্টিনে আটকা ১ হাজার পর্যটক

প্রকাশ : ০৬ মার্চ ২০১৯, ১৬:১৯

সাহস ডেস্ক

বৈরী আবহাওয়ার কারণে টেকনাফ-সেন্ট মার্টিন নৌপথে বুধবার সকাল থেকে জাহাজ চলাচল বন্ধ রয়েছে। এতে সেন্ট মার্টিনে বেড়াতে যাওয়া হাজারও পর্যটক আটকা পড়েছেন। আজ যাদের সেন্টমার্টিন যাওয়ার কথা ছিল, তারা অনেকেই কক্সবাজারের দিকে চলে যাচ্ছেন।

বুধবার (৬ মার্চ) সকাল থেকে জাহাজ চলাচল বন্ধ রাখা হয়। বৈরী আবহাওয়ার কারণে সমুদ্রবন্দর ও উপকূলীয় এলাকায় ৩নং সতর্কসংকেত জারি রয়েছে। এ অবস্থায় টেকনাফ থেকে সেন্ট মার্টিনে যায়নি পর্যটকবাহী কোনো জাহাজ।

এর আগে মঙ্গলবার (৫ মার্চ) আটকা পড়াসহ অন্তত ৩ হাজার পর্যটক সেন্টমার্টিন ভ্রমণে যায়। এ সময় প্রায় ১৩শ’পর্যটক দ্বীপে রাত্রিযাপনের জন্য থেকে যায়। বুধবার সকাল থেকে কক্সবাজারে হালকা এবং মাঝারি বৃষ্টিপাত হয় এবং সাগর উত্তাল থাকায় টেকনাফ সেন্টমার্টিন রুটে নৌ চলাচল বন্ধ রেখেছে স্থানীয় প্রশাসন।

টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. রবিউল হাসান বলেন, ৩নং সর্তকসংকেত থাকার কারণে পর্যটকবাহী জাহাজ ও নৌযানকে টেকনাফ থেকে ছেড়ে না যাওয়া এবং মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত সাবধানে চলাচল করতে বলেছে আবহাওয়া অধিদফতর।

তিনি আরও বলেন, বৈরী আবহাওয়ার কারণে সেন্ট মার্টিন নৌপথে জাহাজসহ নৌযান চলাচল বন্ধ রাখা হয়। ফলে সেন্ট মার্টিনে অবস্থান করা পর্যটকরা আটকা পড়েছেন। তাদের খোঁজখবর রাখা হচ্ছে। আবহাওয়া পরিস্থিতি ভালো হলে তাদের ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করা হবে।

পর্যটকবাহী জাহাজ কেয়ারি সিন্দাবাদের  ব্যবস্থাপক শাহ আলম জানান, মঙ্গলবার টেকনাফ থেকে চারটি জাহাজে করে প্রায় তিন হাজার পর্যটক সেন্টমার্টিন ভ্রমণে যান। সেখান থেকে অর্ধেকের বেশি পর্যটক টেকনাফ চলে আসে। কিন্তু বৈরী আবহাওয়ার কারণে বুধবার টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিনে কোনো জাহাজ না যাওয়ায়  প্রায় ১৩শ’ পরযটক ফিরতে পারেননি।

তিনি আর জানান, দুপুরের পর থেকে আকাশ পরিষ্কার হয়ে আসায় আশা করছি প্রশাসনের অনুমতি পেলে বৃহস্পতিবার (৭ মার্চ) থেকে আবার চালু করা যাবে নৌযান।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত