ইনিংস ব্যবধানে হেরে হোয়াইটওয়াশ বাংলাদেশ

প্রকাশ : ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ১৮:৪৬

সাহস ডেস্ক

পাকিস্তানের বিপক্ষে আজ দ্বিতীয় টেস্টে হার এড়াতে বাংলাদেশের দরকার ছিল ২১৩ রান। কিন্তু দ্বিতীয় ইনিংসে ২০৫ রানে সব উইকেট হারায় মুমিনুলরা। দিনের একদম শেষের দিকে তাইজুল ইসলামকে হারিয়ে মাত্র ৮ রানে হেরে যায় বাংলাদেশ। দ্বিতীয় টেস্টে ইনিংস ব্যবধানে বাংলাদেশকে হারিয়ে হোয়াইটওয়াশ কর সফরকারী পাকিস্তান।

বুধবার (৮ ডিসেম্বর) মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে হেরে ২-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে বাংলাদেশ।

ফলো অনে পড়ে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ২৫ রানে ৪ উইকেট হারায় বাংলাদেশ। দুই ওপেনার সাদমান ইসলাম ২ ও অভিষেক টেস্ট খেলতে নামা মাহমুদুল হাসান জয় ৬ রান করে ফিরেন। তিন নম্বরে নামা নাজমুল হোসেন শান্ত ৬ ও অধিনায়ক মোমিনুল হক ৭ রান করে ফিরেন।

এরপর পঞ্চম উইকেটে হাল ধরেন মুশফিকুর রহিম ও লিটন দাস। পঞ্চম উইকেটে ১৫০ বলে ৭৩ রান করেন তারা। লিটন ৪৫ রানে আউট হন। আর চা-বিরতির আগে ৪৮ রানে থামেন মুশফিক। ষষ্ঠ উইকেটে সাকিব আল হাসানের সাথে ৪৯ রানের জুটিও গড়েন মুশফিক। মুশির আউটের পরই চা-বিরতিতে যায় বাংলাদেশ। সাকিব ২৫ রানে অপরাজিত ছিলেন।

এরপর সাকিবের সাথে নামেন মেহেদী হাসান। পাকিস্তানকে দ্বিতীয়বার ব্যাটিংয়ে নামানোর দায়িত্বটা সাকিবের কাঁধেই। তবে মেহেদী হাসান মিরাজকে নিয়ে তিনি উইকেটে জমে গেলে ফলোঅন থেকে ড্রয়ের স্বপ্ন দেখতেই পারে বাংলাদেশ।

দ্বিতীয় ইনিংসে খেলার শেষ ঘন্টার শুরুতে মেহেদী হাসানকে এলবিডব্লুর ফাঁদে ফেলে অধিনায়ক বাবর আজম। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে উইকেটের খাতা খুললেন বাবর। বাংলাদেশের প্রথম ইনিংসে কাল বল করেছিলেন বাবর আজম। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এটাই ছিল বাবরের প্রথম বোলিং। আজ উইকেটের খাতা খুললেন।

৬৩ রানে আউট হয়ে ফিরছেন সাকিব আল হাসান।

এর মধ্য দিয়ে সপ্তম উইকেটে সাকিব–মিরাজের ১৩৯ বলে ৫১ রানের জুটি ভেঙে গেল। এরপর নামেন তাইজুল ইসলাম। মিরাজ আউট হওয়ার পর মাত্র ৮ বল পরে ফিরলেন সাকিবও। সাজিদ খানের বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন বাংলাদেশের এ অলরাউন্ডার। ১৩০ বলে ৯ চারে ৬৩ রান করেন সাকিব। তাকে আউট করার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের দুই ইনিংস মিলিয়ে এরই মধ্যে ১০ উইকেটের দেখা পেলেন পাকিস্তানের অফ স্পিনার সাজিদ খান।

এরপর দলের ভরসা হয়ে দাঁড়ায় তাইজুল ইসলাম ও এবাদত হোসেন। পঞ্চম ও শেষ দিনের শেষের দিকে সাজিদদের ঠেকিয়ে সন্ধ্যা নামিয়ে আনছিলেন তাইজুল ও এবাদত। আলো কমে আসছে, যে কোনো সময় খেলা শেষের ঘোষণা দিতে পারেন আম্পায়ার। কিন্তু শেষ রক্ষা হলো না বাংলাদেশের। সাজিদের বল তাইজুলের প্যাডে লাগল, আম্পায়ার আউট দিলেন। বাংলাদেশ রিভিউ নিল, লাভ হলো না। যে ম্যাচে হারটা একটা সময় মনে হচ্ছিল অনেক কঠিন, সেটাকেই সহজ বানিয়ে ছাড়ল বাংলাদেশ। বৃষ্টিতে প্রায় আড়াই দিন পন্ড হয়ে যাওয়ার পরেও হেরে গেল। পাকিস্তানের কাছে ধবলধোলাই হলো টেস্টেও।

দুই ইনিংস মিলিয়ে ১২ উইকেট নিয়েছেন পাকিস্তানের অফ স্পিনার সাজিদ খান।

পাকিস্তানের হয়ে দুই পেসার শাহিন শাহ আফ্রিদি ও হাসান আলি ২টি করে উইকেট নেন। প্রথম ইনিংসে ৮ উইকেট নেওয়া স্পিনার সাজিদ খান আজ নিয়েছেন ৪টি উইকেট। এক টেস্টে মোট ১২ উইকেট নিলেন তিনি।

এর আগে দ্বিতীয় টেস্টে টসে জিতে আগে ব্যাট করে ৪ উইকেট হারিয়ে ৩০০ রান তুলে ড্রিক্লেয়ার দেয় পাকিস্তান। এরপর ব্যাটিংয়ে নেমে বাংলাদেশ নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৮৭ রানে অলআউট হয়। দ্বিতীয় ইনিংসের ব্যাটিং দিয়েও পাকিস্তানের প্রথম ইনিংসের রান টপকে যেতে না পারায় ইনিংস ব্যবধানে হারল বাংলাদেশ। এর মধ্য দিয়ে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ ২–০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ হলো বাংলাদেশ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
পাকিস্তান (প্রথম ইনিংস): আবিদ আলী ৩৯, আব্দুল্লাহ শফিক ২৫, আজাহার আলী ৫৬, বাবর আজম ৭৬, ফাওয়াদ আলম ৫০* ও মোহাম্মদ রিজওয়া ৫৩* রান। (তাইজুল ইসলাম ২টি উইকেট এবং এবাদত হোসেন ও খালেদ আহমেদ ১টি করে উইকেট নেন।)

বাংলাদেশ (প্রথম ইনিংস): নাজমুল হাসান শান্ত ৩০ ও সাকিব আল হাসান ৩৩ রান। (শাজিদ খান ৮, শাহিন আফ্রিদ্রী ১টি উইকেটন নেন।)

বাংলাদেশ (দ্বিতীয় ইনিংস): মুশফিকুর রহিম ৪৮, লিটন দাস ৪৫, সাকিব আল হাসান ৬৩ ও মেহেদী হাসান ১৪ রান। (সাজিদ খান ৪টি এবং শাহিন আফিদ্রি ও হাসান আলী ২টি করে উইকেট নেন।)

ম্যাচ সেরা হয়েছেন সাজিদ খান এবং সিরিজ সেরা হয়েছেন আবিদ আলী।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
আপনি কী মনে করেন করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের পদক্ষেপ সন্তোষজনক?