রূপকথার গল্পে ইউএস ওপেন রানি রাদুকানু

প্রকাশ : ১২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:১৩

সাহস ডেস্ক

মাত্র তিন মাস আগে পেশাদার টেনিসে অভিষেক হয়েছে এমা রাদুকানুর। ক্যারিয়ার শুরু করতে না করতেই ইউএস ওপেন টেনিসে ইতিহাস গড়লেন তিনি। রূপকথার গল্পটার দারুণ ইতি টেনে ইউএস ওপেনের মুকুটটা নিজের করে নিলেন ১৮ বছরের এই ব্রিটিশ নারী।

রবিবার (১২ সেপ্টেম্বর) আর্থুর অ্যাস স্টেডিয়ামে উইএস ওপেনের ফাইনালে কানাডিয়ান লেইলা ফার্নান্দেজকে ৬-৪, ৬-৩ গেমে হারিয়ে টেনিস চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন রাদুকানু।

রাদুকানু কেবল ইউএস ওপেনের শিরোপাই প্রথমবারের মতো জেতেননি, তিনি হচ্ছেন যেকোনো গ্র্যান্ড স্লাম প্রতিযোগিতাতেই প্রথম কোয়ালিফাইয়ার খেলে আসা শিরোপাজয়ী। ব্রিটিশ নারী হিসেবে রাদুকানু টেনিস খেলোয়াড় হিসেবে সারা জাগালেন বহুদিন পর। ব্রিটিশ নারী টেনিস খেলোয়াড় হিসেবে তার আগে সবশেষ গ্র্যান্ড স্লাম শিরোপা (উইম্বলডন) জিতেছিলেন ভার্জিনিয়া ওয়েড, সে প্রায় ৪৪ বছর আগে, ১৯৭৭ সালে।

১৯৯৯ সালের পর এবারই প্রথম ইউএস ওপেনে মেয়েদের শিরোপার লড়াইয়ে মুখোমুখি হয়েছিল দুই অবাছাই টেনিস খেলোয়াড়। দুজনই অষ্টাদশী। আজ থেকে ২২ বছর আগে এভাবেই ইউএস ওপেনের ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিল দুই ‘অবাছাই’-সেরেনা উইলিয়ামস ও মার্টিনা হিঙ্গিস। শেষ হাসিটা হেসেছিলেন সেরেনাই। এবার রাদুকানু আর লেইলা ফার্নান্দেজের ফাইনালটাকেও টেনিস সার্কিটে ‘নতুনের আবাহন’ হিসেবে দেখা হচ্ছিল।

রাদুকানুর শিরোপাজয়ের যাত্রাপথটা দুর্দান্তই। কোয়ালিফাইয়ার থেকে শিরোপা জয়, এ সময় মোট ১০টি ম্যাচ খেলতে হয়েছে তাকে। তিনটি ম্যাচ ছিল কোয়ালিফাইয়ারে, বাকি সাতটি ম্যাচ মূল প্রতিযোগিতায়। বেশ কয়েকজন বড় নামের মুখোমুখি হয়েছেন তিনি। দারুণ ব্যাপারটা হচ্ছে, যার সঙ্গেই খেলা হোক না কেন, এই দশটি ম্যাচে একটি সেটও হারেননি রাদুকানু। তালিকার ১৫০তম টেনিস খেলোয়াড়ের শিরোপাজয়ের যাত্রাপথটা এত মসৃণ হতে পারে-এবারের ইউএস ওপেন সেটি দেখিয়ে দিল।

এমন কীর্তি গড়ার পর রাদুকানু পুরস্কার হাতে শুধু একটি কথাই বলেন, ‘আমার বিশ্বাস হচ্ছে না, আমি গ্র্যান্ডস্ল্যাম জিতেছি।’

সাহস২৪.কম/এসকে.

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
আপনি কী মনে করেন করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের পদক্ষেপ সন্তোষজনক?