তামিমকে ছাড়াই বিশ্বকাপে বাংলাদেশ

প্রকাশ : ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:১৪

সাহস ডেস্ক

আসছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য আজ বৃহস্পতিবার দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। দলে নতুন ছয় মুখের দেখা মিললেও সরে দাঁড়িয়েছেন দেশসেরা ব্যাটার তামিম ইকবাল। কিছুদিন আগে ফেসবুকে এক ভিডিও বার্তায় তামিম নিজেই জানিয়ে দিয়েছেন এবারের বিশ্বকাপে দলের সাথে তিনি থাকছেন না। এই প্রথমবার বিশ্বকাপের মতো বড় কোনো আয়োজনে কোটি দর্শক ও সতীর্থদের সাথে মাঠ কাপাবেন না  বাঁহাতি এই বুমবুম তারকা।

চোট ও ব্যক্তিগত কারণে ২০২০ সালে জিম্বাবুয়ের সিরিজের পর থেকেই বাংলাদেশের হয়ে কোনো টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেননি তামিম। এ সময়ে বাংলাদেশ খেলেছে ১৬টি টি-টোয়েন্টি। এতগুলো ম্যাচ না খেলার পরেও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলে থাকতে চাননি তামিম। নিজে থেকেই বিশ্বকাপের মতো আসরের স্কোয়াড থেকে নিজেকে সরিয়ে নেওয়ার নজির দেশে ও দেশের বাইরে খুব বেশি নেই-এটা বলা যায়।

বিশ্বকাপের দলে মাহমুদউল্লাহ, সাকিব আল হাসান ও মুশফিকুর রহিমের মতো অভিজ্ঞ তারকারা থাকলেও খেলবেনা তামিম। ২০০৭ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেকের পর এই প্রথম তামিমকে ছাড়াই কোনো বৈশ্বিক টুর্নামেন্টে খেলতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। ২০০৭ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজে ওয়ানডে বিশ্বকাপের পর একই বছর শেষের দিকে দক্ষিণ আফ্রিকাতে অনুষ্ঠিত প্রথম টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও দলে ছিলেন তিনি। এরপর ২০০৯, ২০১০, ২০১২, ২০১৪ ও ২০১৬ সালে খেলেছেন আরও পাঁচটি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। ২০০৭ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপের পর তামিমের নামের পাশে আছে আরো তিনটি ওয়ানডে বিশ্বকাপ খেলার অভিজ্ঞতা (২০১১, ২০১৫ ও ২০১৯)। সে কারণেই নিজে থেকে সরে দাঁড়ালেও প্রধান নির্বাচক যখন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড়দের নাম ঘোষণা করছিলেন, তখন ‘তামিম’ নামটির অনুপস্থিতি অন্য রকম অনুভূতিই ছড়িয়েছে সবার মধ্যে।

তামিম ইকবাল টি-টোয়েন্টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন ৭৮টি। এর মধ্যে বিশ্বকাপে খেলেছেন ২৩টি। বাংলাদেশের হয়ে টি-টোয়েন্টিতে এখন পর্যন্ত একমাত্র সেঞ্চুরি করেছেন তিনিই। ২০১৬ সালে ভারতে অনুষ্ঠিত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ওমানের বিপক্ষে সেঞ্চুরি করেছিলেন তিনি।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
আপনি কী মনে করেন করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের পদক্ষেপ সন্তোষজনক?