বড় জয়ে মাহমুদউল্লাহকে বিদায় জানালো বাংলাদেশ

প্রকাশ : ১১ জুলাই ২০২১, ১৯:৫৬

সাহস ডেস্ক

জয়ের প্রস্তুতি আগেই নিয়েছিল বাংলাদেশ। হারারে টেস্টের চতুর্থদিনের ‘ডাইহার্ড’ প্রস্তুতির পর আজ শেষ দিন; মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের বিদায়ের উপলক্ষ। দিনের শুরুটাই হলো মাহমুদউল্লাহর গার্ড অব অনার দিয়ে। মুমিনুলদের বিদায়ী অভিবাদনে নিশ্চিত হলো এটাই দেশের হয়ে সাদা পোশাকে টাইগার অলরাউন্ডার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের শেষ টেস্ট।

আজ রবিবার জিম্বাবুয়ের হারারে স্টেডিয়ামে একমাত্র টেস্টের পঞ্চম দিনে স্বাগতিক জিম্বাবুয়েকে ২২০ রানে হারিয়ে বিশাল জয় পেয়েছে বাংলাদেশ।

দেশের গর্ব মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ

জিম্বাবুয়ের ৩ উইকেট হারিয়ে আজ দিন শুরু করেছিল বাংলাদেশ। নাইটওয়াচম্যান ডোনাল্ড টিরিপানোকে নিয়ে ডিওন মেয়ার্স সকালের অনেকটা সময় পার করে দিচ্ছিলেন। এর মধ্যে বাংলাদেশও ক্যাচ মিস করে দুজনকে থিতু হওয়ার সুযোগ করে দিয়েছেন। শেষ পর্যন্ত ড্রিংকসের পর মনযোগে চির ধরেছে মায়ার্সের। মেহেদী হাসান মিরাজের বলে শর্ট মিডউইকেটে ক্যাচ তুলে দিয়েছেন সাদমান ইসলামকে। মায়ার্স আউট হয়েছেন ২৬ রানে।

এরপর খুব দ্রুতই উইকেট হারাতে শুরু করে জিম্বাবুয়ে। তাসকিনের ওভারে মারুমা এলবিডব্লু হয়ে ফেরেন কোনো রান না করেই। ১৫৯ রানে তখন ৫ উইকেট হারায় জিম্বাবুয়ের। আরেক প্রান্তে তাসকিন দেখিয়েছে তার দারুন স্পেল। এতে পুরস্কারও পেয়ে যান তিনি। কোনো রান না করা কাইয়ায়ে এলবিডব্লু করে ফেরান তাসকিন। এর এক ওভার পর তাসকিনের বলেই ভেতরের দিকে ঢোকা বলে পেসে বিট হলেন রেজিস চাকাভার। স্টাম্প গুটিয়ে গেল তার। তাসকিন পেলেন তৃতীয় উইকেট। ৭ উইকেট হারানো জিম্বাবুয়ের কাছে পরাজয় তখন সময়ের ব্যাপার।

এদিকে শুরুতে নিউয়াচির সঙ্গে নিয়ে বাংলাদেশকে আটকে রেখেছিলেন টিরিপানো। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আর দাঁড়াতে পারলেন না টিরিপানো। তাসকিনের শর্ট বলে সাকিবের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন নিউয়াচি। এ নিয়ে দাঁড়ালো তাসকিনের ৪ উইকেট।

এরপর মুজারাবানিকে নিয়ে আবারও জুটি বাঁধলেন টিরিপানো। দুজনের জুটিতে ৪১ রান ওঠার পর শেষ পর্যন্ত আর টিকে থাকতে পারলেন না টিরিপানো। এটা তার দুর্ভাগ্য, এবাদতের করা বলটা তার ব্যাটে লেগেছিল মনে করে আউট দিয়েছিলেন আম্পায়ার। কিন্তু বলটা লেগেছিল তার থাই প্যাডে। সর্বশেষ ১৪৪ বলে ৬ বাউন্ডারিতে ৫২ রান করে ফিরলেন নাইটওয়াচম্যান টিরিপানো।

এরপর মুজারবানি ও এনবগারভাও বেশ কিছুক্ষণ ভোগাচ্ছিলেন। কিন্তু সেটা আর সহ্য হলোনা মিরাজের। দারুণ ঘূর্ণিতে রিচার্ড এনগারাভাকে বোল্ড করেন মিরাজ। সাজঘরে ফেরার আগে ১০ রান করেছিলেন এনগারাভা। আর এতে ৪ উইকেট তুলে নিলেন মেহেদী হাসান মিরাজ। এ নিয়ে এক টেস্টে ৯টি উইকেট তুলে নিলেন মিরাজ। অপর দিকে ৩০ রানে অপরাজিত থাকেন ব্লেসিং মুজারবানি।

এতে ৯৪.৪ ওভারে ২৫৬ রানে অলআউট হয়ে স্বাগতিক জিম্বাবুয়ে। অবশেষে ২২০ রানের বড় জয় নিয়ে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে টেস্ট ক্রিকেট থেকে বিদায় জানান মিরাজ-তাসকিনরা।

এর আগে জয়ের জন্য জিম্বাবুয়েকে ৪৭৭ রানের লক্ষ্য দেয় বাংলাদেশ। চতুর্থ দিনের শেষ বিকেলে ব্যাট করতে নেমে ৩ উইকেট হারিয়ে ১৪০ রান তোলে স্বাগতিকরা। ওয়ানডে স্টাইলে খেলে ৭৩ বলে ৯২ রান করেন ব্রেন্ডন টেলর।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস: ৪৬৮/১০ (মাহমুদউল্লাহ ১৫০*, লিটন দাস ৯৫, তাসকিন আহমেদ ৭৫, মুমিনুল হক ৭০, সাদমান ইসলাম ২৩। ব্লেসিং মুজারবানি ৪/৯৪ এবং টিরিপানো ও নাওচি ২টি করে উইকেট নেন।

জিম্বাবুয়ে প্রথম ইনিংস: ২৭৬/১০ (তাকুজওয়ানাশে কাইতানো ৮৭, ব্রেন্ডন টেলর ৮১, রেগিস চাকাভা ৩১*। মেহেদি মিরাজ ৫/৮২, সাকিব আল হাসান ৪/৮২)

বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংস: ২৮৪/১ ডিক্লে. (সাদমান ইসলাম ১১৫*, নাজমুল হোসেন শান্ত ১১৭*, সাইফ হাসান ৪৩)

জিম্বাবুয়ে দ্বিতীয় ইনিংস: ২৫৬/১০ (ব্রেন্ডন টেলর ৯২, ডোনাল্ড তিরিপানো ৫২, ব্লেসিং মুজারবানি ৩০*। মেহেদি মিরাজ ৪/৬৬, তাসকিন আহমেদ ৪/৮২)

ম্যাচ সেরা হয়েছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
আপনি কী মনে করেন করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের পদক্ষেপ সন্তোষজনক?