কোপা আমেরিকা: নিজের ইতিহাস ভাঙতে হবে মেসিকে!

প্রকাশ : ১১ জুলাই ২০২১, ০৭:১৭

সাহস ডেস্ক

অনেক দীর্ঘ সফরের পর অবশেষে আরও একবার শিরোপার মুখোমুখি লিওনেল মেসি। ব্রাজিলকে হারিয়ে জয়ের স্বাদ নিতে হলে ভাঙতে হবে মেসির নিজের ইতিহাস। জাতীয় দলের জার্সি নিয়ে আন্তর্জাতিক শিরোপা জয়ের যে শূন্যতা কোপা দিয়ে কি এবার ঘুচাতে চললেন মেসি?

২০১৪ বিশ্বকাপে লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনা উঠেছিল ফাইনালে। প্রানপন লড়াই করেও সেই ফাইনালে জার্মানীর কাছে হেরে স্বপ্ন ভঙ্গ হয় তাদের।

এরপর দুটি কোপা আমেরিকাতে টানা ফাইনাল খেলে আর্জেন্টিনা। কিন্তু প্রতিবারই খালি হাতে ফিরতে হয় মেসিদের। এক আসর পর আবারও আর্জেন্টিনা উঠেছে লাতিন আমেরিকার শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ে। মহাদেশীয় সেরা হওয়ার লড়াইয়ে এবার মেসিদের প্রতিপক্ষ স্বাগতিক ব্রাজিল। আজ রবিবার ভোর ছয়টায় বিখ্যাত মারাকানা স্টোডিয়ামে আর্জেন্টিনার তিন দশকের শিরোপা খরা কাটাতে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিলের মুখোমুখি হয়েছে আসমানী-শাদার দল। মেসি কি পারবে এবার দেশের হয়ে শিরোপা আক্ষেপ ঘুচাতে?

ব্রাজিলের মাঠে স্বাগতিকদের হারিয়ে শিরোপা জিততে হলে নিজে ইতিহাসও বদলাতে হবে মেসিকে। দেশের হয়ে একমাত্র শিরোপার ছোয়া পেতে জ্বলে উঠতে হবে লিওনেল মেসিকে। কেননা, আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে ব্রাজিলের বিপক্ষে একটি হ্যাট্রিকসহ মোট পাঁচ গোল করা মেসি প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে এখনও নিজেকে মেলে ধরতে পারেনি। ব্রাজিলের বিপক্ষে প্রতিযোগিতামূলক ৬ ম্যাচে কোন গোল কিংবা অ্যাসিস্ট করতে পারেননি। এমনকি চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে ৩ জয় পাওয়া মেসি এখনও প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে কোন জয়ের দেখা পাননি।

প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে লিওনেল মেসি প্রথমবার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিলের মুখোমুখি হয় ২০০৭ সালে কোপা আমেরিকা ফাইনালে। ম্যাচে আর্জেন্টিনাকে ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত করে কোপা আমেরিকার চ্যাম্পিয়ন হয় ব্রাজিল। এই ম্যাচে ছিল না মেসির কোন গোল কন্ট্রিবিউশান।

২০০৮ সালে প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে ব্রাজিলের বিপক্ষে মেসির পরেরবার দেখা হয় লাতিন আমেরিকা অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচে। ম্যাচটি শূন্য গোলের সমতায় শেষ হয়। এই ম্যাচেও ছিল না মেসির কোন গোলে অবদান।

২০০৯ সালে আবার একই প্লাটফর্মে দুই দলের ফের মুখোমুখি লড়াইয়ে ব্রাজিল আর্জেন্টিনাকে ৩-১ গোলে হারায়। পুরো নব্বই মিনিট ম্যাচ খেলে এবারও কোন গোলে করতে পারেনি মেসি।

২০১৮ বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে ঘরের মাঠে কম্পিটিটিভ ম্যাচে ব্রাজিলের বিপক্ষে খেলে মেসি। ইঞ্জুরির কারণে পুরো ম্যাচ খেলতে না পারলেও ১-১ সমতাসূচক এই ম্যাচেও মেসির ছিল না কোন গোলে অবদান। ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপের বাছাইপর্বের ফিরতি লেগ ব্রাজিলের ঘরের মাঠে বেল হরিজন্তে আবার মুখোমুখি হয় মেসির আর্জেন্টিনা। সেই ম্যাচে নেইমার, কৌতিনহো ও পাউলিনোর গোলে আর্জেন্টিনাকে ৩-০ গোলে উড়িয়ে দেয় ব্রাজিল। এই ম্যাচেও মেসির ছিল না কোন গোল কন্ট্রিবিউশান।’

ব্রাজিলের বিপক্ষে মেসি সর্বশেষ প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচ খেলে ২০১৯ সালে কোপা আমেরিকার সেমিফাইনালে। এই ম্যাচেও যথারীতি আর্জেন্টিনাকে ২-০ গোলে হারিয়ে কোপা আমেরিকার সেমিফাইনাল নিশ্চিত করে ব্রাজিল। ফাইনালে পেরুকে হারিয়ে নবমবারের মত মহাদেশীয় শ্রেষ্ঠত্বের মর্যাদা লাভ করে সেলেসাওরা। এই টুর্নামেন্টই ব্রাজিলের বিপক্ষে হারার পর মেসি কনমেবল নিয়ে সমালোচনা করায় নিষিদ্ধ হোন। পরে অবশ্য ভুল স্বীকার করে ক্ষমা চেয়ে শাস্তি কমিয়ে নেয়।

সবমিলয়ে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিলের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে একটি হ্যাট্রিকসহ মোট ৫ গোল করা লিওনেল মেসি ৬টি প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে করতে পারেনি কোন গোল, কোন এসিস্ট, জিততে পারে নাই কোন ম্যাচ।আসল কথাটি হচ্ছে,আর্জেন্টিনার জার্সিতে মেসির অভিষেক হওয়ার পর থেকে প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে ব্রাজিলের বিপক্ষে আলবিসেলেস্তারা জিততে পারেনি আর কোন ম্যাচ। তাই দেশের হয়ে ক্যারিয়ারের প্রথমবার বড় শিরোপা জিততে হলে ধাক্কা দিতে হবে নিজেরই ইতিহাসে। এই ইতিহাস-ইতিহাসই থেকে যাবে নাকি বদলে দিয়ে জয়ের দিকে এগিয়ে যাবেন লিওনেল মেসিকে! এটাই দেখার পালা।

 https://www.sahos24.com/sports/72327/

সর্বশেষ আপডেট পাওয়া পর্যন্ত ডিমারিয়ার ১-০ গোলে এগিয়ে আছে আসমানী শাদার দল।

সাহস২৪.কম/সজিব তুষার

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
আপনি কী মনে করেন করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের পদক্ষেপ সন্তোষজনক?