রোনালদোর রেকর্ডের দিনে শেষ ষোলোতে পর্তুগাল

প্রকাশ : ২৪ জুন ২০২১, ১৬:৪১

সাহস ডেস্ক

কোপা আমেরিকায় বিশ্বকাপ জয়ী ফ্রান্সের বিপক্ষে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর জোড়া পেনাল্টি গোলেই শেষ ষোলোতে পৌঁছে গেছে পর্তুগাল। বুধবার (২৩ জুন) দিবাগত রাতে ফ্রেন্স পুচকাস স্টেডিয়ামে ফ্রান্সের বিপক্ষে ২-২ গোলে ড্র করেছে পর্তুগিজরা। ফরাসিদের হয়ে জোড়া গোল করেছেন রিয়াল ফরোয়ার্ড করিম বেনজেমা।

‘এফ’ গ্রুপে ৩ ম্যাচে ১ জয় ও ২ ড্রয়ে ৫ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ সেরা হয়েছে ফ্রান্স। সমান ম্যাচে ১ জয়, ১ ড্র ও ১ হারে ৪ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয়তে জার্মানি। সমান ম্যাচে জার্মানির সমান ৪ পয়েন্ট নিয়ে তিনে পর্তুগাল। সমান ম্যাচে ২ পয়েন্ট নিয়ে তলানিতে হাঙ্গেরি।

এদিন এফ গ্রুপের শেষ ম্যাচটিতে পুরো সময়টায় সমান লড়েছে পর্তুগাল ও ফ্রান্স। পুরো ম্যাচে সমান ৫টি করে লক্ষ্যে শট নিয়েছে দুই দল। বল দখলের লড়াইয়েও প্রায় সমান ছিল দুই দলের অবস্থান। আর শেষ পর্যন্ত গোলের সংখ্যাও সমান হওয়ায় অমীমাংসিত থেকে গেছে ম্যাচ।

ম্যাচের ৩০ মিনিটে রোনালদোর পেনাল্টি গোলে এগিয়ে যায় পর্তুগাল। ডি-বক্সের ভেতরে পর্তুগিজ মিডফিল্ডার দানিলো পেরেইরার মুখে আঘাত করে বসেন ফ্রান্সের গোলরক্ষক হুগো লরিস। এতে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। স্পট কিক থেকে গোল করে দলকে লিড এনে দেন রোনালদো।

তার ঠিক ৩০ মিনিট পর আবারও পেনাল্টিতে গোল করেন রোনালদো। ম্যাচের ৬০ মিনিটে স্পট কিক থেকে গোলটি করে নিজের জোড়া গোল পূর্ণ করেন রোনালদো। এই জোড়া গোলে জাতীয় দলের হয়ে ১০৯তম গোল করে ফেলেছেন রোনালদো। পেনাল্টি থেকে করা দুটি গোলে তিনি ছুঁয়েন ইরানের কিংবদন্তি আলী দাইয়ির (১০৯) একটি রেকর্ড। নকআউট পর্বে আর মাত্র একটি গোল করলেই তিনি হবেন এককভাবে সর্বোচ্চ গোলদাতা।

এখানেই শেষ নয়, জার্মানির সাবেক স্ট্রাইকার মিরোস্লাভ ক্লোসাকেও পেছনে ফেলেছেন রোনালদো। বিশ্বকাপ ও ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপ মিলিয়ে সবচেয়ে বেশি গোলের রেকর্ডটি এখন রোনলালদোর একার। ১৯ গোল নিয়ে এই রেকর্ডটি এত দিন ছিল ক্লোসার। বিশ্বকাপে ১৬ গোল করার পাশাপাশি ইউরোতে ৩টি গোল করেছেন জার্মানির সাবেক স্ট্রাইকার। আজকের জোড়া গোলে ইউরো ও বিশ্বকাপ মিলিয়ে রোনালদোর গোল হয়ে গেছে ২১টি। ইউরোতে ১৪ গোলের পাশাপাশি বিশ্বকাপে রোনালদোর গোল ৭টি। এরই সাথে সবচেয়ে বেশি ৫ বার ইউরো খেলা ফুটবলার এখন পর্তুগিজ এই সুপারস্টার।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
আপনি কী মনে করেন করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের পদক্ষেপ সন্তোষজনক?