বার্সাকে খালি হাতে ফিরিয়ে শীর্ষে রিয়াল

প্রকাশ : ১১ এপ্রিল ২০২১, ১৫:২০

সাহস ডেস্ক

চলতি মৌসুমের শেষ এল ক্লাসিকোতে মুখোমুখি হয়েছিল রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনা। হয়তো বা এটাই ছিল মেসির শেষ এল ক্লাসিকো। কিন্তু শেষটা ভালো হলো না মেসির। রোমাঞ্চকর ম্যাচে আবারো খালি হাতে ফিরেছে কাতালান ক্লাব বার্সেলোনা। করিম বেনজেমা ও টনি ক্রুসের দুর্দান্ত গোলে বার্সাকে হারিয়ে লিগের পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠে এসেছে স্প্যানিশ ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদ। এ নিয়ে লিগে মৌসুমের দুই ক্লাসিকোর দুটিই হেরেছে কাতালানরা। আর এ নিয়ে টানা ১৯ ম্যাচ পর হারল বার্সেলোনা।

শনিবার (১০ এপ্রিল) দিবাগত রাতে সান্তিয়াগো বার্নাবুতে রোনাল্ড কোম্যানের বার্সাকে ২-১ গোলে হারিয়েছে জিনেদিন জিদানের রিয়াল।

এই জয়ে এবারও নিজেদের লিগ শিরোপার আশা আরও উজ্জ্বল করেছে রিয়াল। স্প্যানিশ লিগের শিরোপাদৌড়ে এই মুহূর্তে রিয়াল মাদ্রিদ সবার ওপরে। অন্তত ২৪ ঘন্টার জন্য তো বটেই! রিয়াল মাদ্রিদ ও অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ দুই দলেরই পয়েন্ট ৬৬, যদিও অ্যাথলেটিকো ম্যাচ খেলেছে রিয়ালের (৩০ ম্যাচ) চেয়ে একটি কম। বার্সেলোনার পয়েন্ট ৩০ ম্যাচে ৬৫। অ্যাথলেটিকো কাল রাতে খেলবে রিয়াল বেতিসের বিপক্ষে।

স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম কিংবা ইউরোপের কেউই এখনো জানে না মৌসুম শেষে বার্সার সঙ্গে শেষ হতে যাওয়া চুক্তিটা আবার মেসি নবায়ন করবেন কি না। না করলে এই হারই হয়ে থাকল ক্লাসিকোতে মেসির শেষ পদচারণার স্মৃতি।

বার্সা অধিনায়কের একটা রেকর্ড হওয়ার কথা ছিল। হলো। রিয়াল অধিনায়ক সের্হিও রামোস চোটের কারণে ম্যাচে নেই। মেসি তাই মাঠে নামলেই ছুঁয়ে ফেলতেন রামোসের সবচেয়ে বেশি ৪৫টি এল ক্লাসিকো খেলার রেকর্ড। বার্সেলোনা ফরোয়ার্ড তা ছুঁয়ে ফেললেন। এল ক্লাসিকোর ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি গোল ও অ্যাসিস্টের রেকর্ডও তারই ছিল।

কিন্তু মেসির অযাচিত আরেকটা ব্যক্তিগত রেকর্ডও হয়ে গেল। এর আগের ছয় এল ক্লাসিকোর মতো এবারও গোলহীন থেকে গেলেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। ক্যারিয়ারে এর আগে শেষ কবে টানা ৭ ম্যাচ গোলহীন ছিলেন মেসি জানা নেই।

এদিন করিম বেনজেমার গোলে স্বাগতিকরা এগিয়ে যাওয়ার পর ব্যবধান দ্বিগুণ করেন টনি ক্রুস। বার্সেলোনার একমাত্র গোলটি করেন অস্কার মিনগেসা।

পুরো ম্যাচে বার্সার বলের দখল ছিল ৬৯ শতাংশ। কিন্তু বার্সার এই বলের দখল যে অর্থহীন, তা-ই যেন প্রমাণ করে দিয়েছে রিয়াল। ম্যাচে প্রতিপক্ষের পোস্ট লক্ষ্য করে বার্সা শট নিয়েছে ১৮টি, রিয়াল ১৪টি।

ম্যাচের ১৪ মিনিটে এগিয়ে যায় রিয়াল মাদ্রিদ। দারুণ আক্রমণের পর ডানদিক দিকে বার্সা বক্সে নিচু ক্রস দিলেন রিয়াল রাইটব্যাক লুকাস ভাসকেজ। দারুণ এক ব্যাক ফ্লিকে বলটা জালে পাঠিয়ে দিলেন বেনজেমা। এতে ১-০ গোলে এগিয়ে যায় রিয়াল।

এরপর ম্যাচের ২৮ মিনিটে আবারো এগিয়ে গেল রিয়াল। বক্সের বাইরে ফ্রি-কিক পেল রিয়াল। টনি ক্রুসের শট বার্সার দুই ডিফেন্ডারের গায়ে লেগে ঢোকে জালে। এতে বিরতির আগেই ২-০ গোলে এগিয়ে গেল জিদানের দল। পরে প্রথমার্ধে আর কোনো গোল না হলে এই ২-০ গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় রিয়াল মাদ্রিদ।

বিরতি থেকে ফিরে এসে সমতায় ফিরতে মারিয়া বার্সেলোনা। বিরতির পর ৪-৩-৩ ছকে বদলে যায় বার্সা। সেটির ফলই কিনা বার্সা পেল ৬০ মিনিটে। মেসির পাস ধরে বাঁ দিক থেকে ক্রস করেন জর্দি আলবা, কোনোরকমে তাতে পা ছুঁইয়ে গোল করেন ডিফেন্ডার অস্কার মিঙ্গেসা। পরে বাকি সময়ের বেশি সময়ে ধরে বল পায়ে রেখেও গোলটি শোধ করতে পারেনি রোনাল্ড কোম্যানের দল। অবশেষে এই ২-১ গোলের হার নিয়ে মাঠ ছাড়ে বার্সেলোনা।

এই জয়ে ৩০ ম্যাচে ৬৬ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলে শীর্ষে উঠে এসেছে রিয়াল মাদ্রিদ। এক ম্যাচ কম খেলে রিয়ালের সমান ৬৬ পয়েন্ট নিয়ে গোল ব্যবধানে পিছিয়ে থেকে টেবিলের দ্বিতীয়তে নেমে গেছে অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ। রিয়ালের সমান ম্যাচে ৬৫ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তৃতীয়তে আছে বার্সেলোনা।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
আপনি কী মনে করেন করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের পদক্ষেপ সন্তোষজনক?