হরলান্ডের জোড়া গোলে ডর্টমুন্ডের রোমাঞ্চকর জয়

প্রকাশ : ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৬:২৯

সাহস ডেস্ক

উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোর প্রথম লেগে আর্লিং হরলান্ডের জোড়া গোলে সেভিয়ার মাঠে তাদেরকেই হারিয়ে সেমিফাইনালের পথে এক পা দিয়ে রাখল বরুশিয়া ডর্টমুন্ড।

বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) রামোন সানচেজ পিজুয়ান স্টেডিয়ামে স্বাগতিক সেভায়াকে ২-৩ গোলে হারিয়েছে

এদিন ম্যাচের শুরুতেই এগিয়ে যায় সেভিয়া। ম্যাচের সপ্তম মিনিটে সেভিয়ার সুসো শট নিয়েছিলেন গোলের দিকে। কিন্তু ডর্টমুন্ডের ম্যাটস হুমেলসের পায়ে লেগে দিক পরিবর্তিত হয়ে সেটি জালে জড়ায়। হতভম্ব হয়ে দাঁড়িয়ে থাকা ছাড়া আর কিছুই করার ছিল না ডর্টমুন্ডের গোলরক্ষকের।

তবে বেশিক্ষণ এই ব্যবধান ধরে রাখতে পারেনি সেভিয়া। ম্যাচের ১৯ মিনিটেই দূর থেকে দারুণ এক শটে গোল করে দলকে সমতায় ফেরান মাহমুদ দাহুদ। এরপর ম্যাচের ২৭ মিনিটে গোলের খাতা খোলেন হরলান্ড। সানচোর পাস থেকে গোল করে দলের ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ২০ বছর বয়সী তারকা।

এরপর বিরতিতে যাওয়ার আগে ব্যবধানটা আবারও বাড়িয়ে দেন হরলান্ড। ম্যাচের ৪৩ মিনিটে রয়েসের পাস থেকে নিজের দ্বিতীয় ও জোড়া গোল পূর্ণ করে দলকে আরো এগিয়ে দেন নরওয়াইজ তারকা আর্লিং হরলান্ড।

২০ বছর বয়সী এই স্ট্রাইকার এরই মধ্যে ইউরোপসেরা হওয়ার প্রতিযোগিতায় ১৩ ম্যাচ খেলে ১৮ গোল করে ফেলেছেন। কাল রাতের ২ গোল এবারের চ্যাম্পিয়নস লিগে এককভাবে সর্বোচ্চ গোলদাতা বানিয়ে দিয়েছেন হরলান্ডকে। এবারের টুর্নামেন্টে তার গোল ৮টি। এমবাপ্পেকে নিজের অনুপ্রেরণা মানলেও গোল করার ব্যাপারে তিনি ফরাসি তারকাকে এক জায়গায় ছাড়িয়ে যাওয়ার পথেই আছেন। আর দুটি গোল হলেই ২১ বছর বয়স হওয়ার আগেই চ্যাম্পিয়নস লিগে সবচেয়ে বেশি গোলের কীর্তিটা পুরোপুরি নিজের করে নিতে পারবেন হরলান্ড। ২৩ বছর বয়সী এমবাপ্পে ২১ বছর বয়স হওয়ার আগেই ১৯টি গোল করেছিলেন।

২০১৮ সালে চ্যাম্পিয়নস লিগে নিজের প্রথম আবির্ভাবেই রেড বুল সালজবুর্গের হয়ে ৮ গোল করেছিলেন হরলান্ড। ২০১৯ সালের জানুয়ারিতে বরুসিয়া তাঁকে ২০ মিলিয়ন ইউরোতে দলে ভেড়ায়। চ্যাম্পিয়নস লিগে ডর্টমুন্ডের হয়ে ৭ ম্যাচে এখন পর্যন্ত ১০ গোল তাঁর। এর মধ্য দিয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগে এক দলের হয়ে সবচেয়ে কম ম্যাচ খেলে ১০ গোল করার রেকর্ডে তিনি পাসে বসেছেন রয় ম্যাকাইয়ের। ২০০৩ ও ২০০৪ সালে ম্যাকাই বায়ার্ন মিউনিখের হয়ে রেকর্ডটি করেছিলেন।

দ্বিতীয়ার্ধে ফিরে এসে সমতায় ফিরতে মরিয়া হয়ে ওঠে। ম্যাচের ৮৪ মিনিটে সমতায় ফেরার আশা আবারও জাগিয়ে তুলেন লুক ডি জং। অস্কার রদ্রিগেজের পাস থেকে ব্যবধানটা ৩-২ করেন এই সুইস ফরোয়ার্ড। পরে আর কোনো গোল হলে এই ৩-২ গোরের ব্যবধানে হেরে যায় সেভিয়া এবং এই জয় নিয়ে সেমিফাইনালের পথে এক পা দিয়ে রাখল বরুশিয়া ডর্টমুন্ড।

আগামী ০৯ মার্চ জার্মানিতে দ্বিতীয় লেগে সেভিয়ার মুখোমুখি হবে বরুশিয়া ডর্টমুন্ড।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
আপনি কী মনে করেন করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের পদক্ষেপ সন্তোষজনক?