x

এইমাত্র

  •  তিন পার্বত্য জেলায় সেনাবাহিনীর ছেড়ে যাওয়া ক্যাম্পে পুলিশ মোতায়েন করা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
  •  মিয়ানমারে বিক্ষোভকারীদের ওপর গুলি, নিহত ৬
  •  ইউপি নির্বাচনে অংশ নেবে না বিএনপি: ফখরুল

মেসির ৫০০তম ম্যাচে ২০০তম অ্যাসিস্ট, ডি জংয়ে বার্সার জয়

প্রকাশ : ০৪ জানুয়ারি ২০২১, ১৩:০৬

এক ক্লাবের হয়ে রেকর্ডের পর রেকর্ড গড়েই যাচ্ছেন আর্জেন্টাইন তারকা লিওনেল মেসি। কিছুদিন আগে এক ক্লাবের হয়ে পেলের রেকর্ড ভেঙে সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়েছেন মেসি। সান্তোসের হয়ে পেলে করেছিলেন ৬৪৩ গোল এবং বার্সেলোনার হয়ে মেসি করেছেন ৬৪৪ গোল। এবার আরেকটি রেকর্ড স্পর্শ করলেন বার্সা অধিনায়ক। বার্সার জার্সিতে স্প্যানিশ লা লিগায় রবিবার রাতে ৫০০তম ম্যাচ খেলতে নামেন মেসি। আর এই ম্যাচেই করেন ২০০তম অ্যাসিস্টের রেকর্ড। বার্সার হয়ে স্পেনের বাইরের কোনো খেলোয়াড়ের এটাই সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলার রেকর্ড। যদিও সব ধরনের প্রতিযোগিতা মিলিয়ে বার্সার জার্সিতে এটা ছিল তার ৭৫০তম ম্যাচ।

তবে লা লিগায় মেসির চেয়ে ৫ ম্যাচ বেশি খেলে এখনও শীর্ষে রয়েছে জাভি হার্নান্দেজ। আর বার্সার জার্সিতে সব মিলিয়ে জাভি খেলেছেন ৭৬৭টি ম্যাচ। এর অর্থ, সব মিলিয়ে এখনও মেসির চেয়ে ১৭ ম্যাচ বেশি খেলা হয়েছে জাভির। আন্দ্রে ইনিয়েস্তা লা লিগায় বার্সার জার্সিতে খেলেছেন ৪৪২ ম্যাচ।

ইউরোপের শীর্ষ পাঁচ লিগের মধ্যে যেকোনো একটিতে বিদেশি হিসেবে সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলার রেকর্ড রায়ান গিগসের। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ৬৩২ ম্যাচ খেলেছেন ওয়েলশ কিংবদন্তি। সিরি ‘আ’ তে ৬১৫ ম্যাচ খেলেছেন আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি হাভিয়ের জানেত্তি। পেরুর সাবেক স্ট্রাইকার ক্লদিও পিজারো বুন্দেসলিগায় ৪৯০ ম্যাচ খেলেছেন। ব্রাজিলের ভিত্তোরিনো হিলটন ৪৯৪ ম্যাচ খেলেছেন লিগ ওয়ানে।

হুয়েস্কার বিপক্ষে লা লিগায় ৫০০তম ম্যাচে এসে ২০০তম অ্যাসিস্টের রেকর্ডও গড়লেন মেসি। মেসি এই ম্যাচে গোল করতে না পরলেও তার অ্যাসিস্ট থেকে গোল করলেন ডাচ মিডফিল্ডার ফ্রাঙ্কি ডি জং। সেই এক গোলেই হুয়েস্কাকে ১-০ ব্যবধানে হারিয়ে পয়েন্ট তালিকার ৫ নম্বরে উঠে এসেছে বার্সেলোনা।

রবিবার (৩ জানুয়ারি) হুয়েস্কার মাঠ স্তাদিও এল অলকোরাজ স্টেডিয়ামে আতিথিয়েতা নেয় বার্সেলোনা। মেসির ৫০০তম এই ম্যাচে করেছেন ২০০তম অ্যাসিস্টের রেকর্ড। আর এই অ্যাসিস্টে গোল করে বার্সাকে জয় এনে দিলেন ডাস তারকা ফ্রেঙ্কি ডি ইয়ং।

পয়েন্ট টেবিলের একেবারে তলানীর দলটি হচ্ছে হুয়েস্কা। তুলনামূলক একেবারেই খর্বশক্তির দল। তবুও এই দলটিকে হারাতে ঘাম ঝরাতে হয়েছে বার্সেলোনাকে। যদিও এদিন পুরো ম্যাচেই বল দখলে রেখেছিল বার্সা। তবুও মাত্র এক গোলের কষ্টার্জিত জয় পেয়েছে কাতালানরা।

ম্যাচের ২৭ মিনিটে বক্সে দারুণ এক চিপ করেন মেসি। দুই ডিফেন্ডারকে ফাঁকি দিয়ে ডি জংয়ের করা ভলি হুয়েস্কার জালে জড়ায়। বিরতির পাঁচ মিনিট আগের মেসির ২০ গজি দূরত্বের ফ্রি–কিক হুয়েস্কা গোলরক্ষক আলভারো ফার্নান্দেজ রুখে না দিলে গোল নিয়ে মাঠ ছাড়তে পারতেন তিনি। তবে ম্যাচের বাকি সময়ে দুর্দান্ত খেলেও আর কোনো গোল পায়নি বার্সা। অবশেষে এই ১-০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় রোনাল্ড কোম্যানের শিষ্যদের।

ম্যাচ শেষে কোম্যান বলেছেন, ‘সাধারণত আমি মনে করি, যদি শেষ ২০ মিনিটের কথা বলেন, তাহলে আমরা ভালো খেলেছি। আমরা অনেকগুলো ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি তৈরি করেছিলাম তাদের জন্য। কিন্তু স্কোরকরা সহজ ছিল না। কারণ, তারা এমন একটি দল, যারা ডিফেন্সিভ খেলোয়াড় দিয়েই পুরো মাঠ ভরে রেখেছিল। তবে আমরা ভালো খেলেছি। একটি গোল করেছি। অনেক সুযোগ তৈরি করেছি। হয়তো আরও বড় লিড নিতে পারতাম।’

এই জয়ে ১৬ ম্যাচে ২৮ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের ৫ম স্থানে উঠে এসেছে বার্সেলোনা। ১৫ ম্যাচ খেলে ৩৮ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে আছে অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ। ১৭ ম্যাচ খেলে ৩৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দ্বিতীয়তে আছে রিয়াল মাদ্রিদ। ১৮ ম্যাচ খেলে ৩০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তৃতীয়তে আছে রিয়াল সোসিয়েদাদ। ১৭ ম্যাচ খেলে ২৯ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের চতুর্থস্থানে আছে ভিয়ারিয়াল।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
আপনি কী মনে করেন করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের পদক্ষেপ সন্তোষজনক?