নেপালের বিপক্ষে সিরিজ জিতল বাংলাদেশ

প্রকাশ : ১৭ নভেম্বর ২০২০, ২০:০৯

সাহস ডেস্ক

নেপালের বিপক্ষে দুই ম্যাচের মুজিব বর্ষ আন্তর্জাতিক সিরিজের প্রথম ম্যাচে ২-০ গোলে জিতে এগিয়ে ছিল বাংলাদেশ। আজ দ্বিতীয় ম্যাচটিতেও জিতে ২-০তে সিরিজ জিততে চেয়েছিল জামালরা। বাংলাদেশ দলের কোচ, খেলোয়াড়রাও বলেছিলেন জয়ের ধারা অব্যাহত রাখতে চান তারা। কিন্তু প্রথম ম্যাচের মত দ্বিতীয় ম্যাচে খুঁজে পাওয়া যায়নি বাংলাদেশকে। তাই তো জয় নয়, দ্বিতীয় ম্যাচে ড্র করেই সিরিজ জিততে হলো লাল-সবুজ জার্সিধারীদের।

মঙ্গলবার (১৭ নভেম্বর) বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে মুজিববর্ষ ফিফা ফ্রেন্ডলি সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচটিতে নেপালের বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র করেছে স্বাগতিক বাংলাদেশ। এই ড্রয়ে ২ ম্যাচের সিরিজে ১-০তে সিরিজ জিতল টাইগাররা। এর আগে গত শুক্রবার প্রথম ম্যাচে নেপালকে ২-০ গোলে হারিয়েছিল জেমি ডের শিষ্যরা।

করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় আজ জামাল ভূঁইয়াদের প্রধান কোচ জেমি ডে মাঠে ছিলেন না। তবে সহকারী কোচ স্টুয়ার্ট ওয়াটকিসের অধীনে একাদশে দুই পরিবর্তন নিয়ে মাঠে নেমেছিল বাংলাদেশ। নেপালের পরিবর্তন ছিল পাঁচটি। লম্বা বিরতির পর প্রথম ম্যাচে দুই দলের খেলার মধ্যে যে জড়তা ছিল, সেটি কাটিয়ে উঠে পাসিং ফুটবল দেখা গেছে আজ। আগের ম্যাচের তুলনায় দেখার জন্য যা সুন্দর হলেও কার্যকারিতা আর প্রমাণ করতে পারল না।

প্রথমার্ধে দুই দল মিলিয়ে উল্লেখ করার মতো সুযোগ মাত্র দুটি। দুটি সুযোগই বাংলাদেশের। তবে পুরোপুরি সুযোগ তৈরি বললেও অন্যায় হতে পারে। ম্যাচের ২৪ মিনিটে বাংলাদেশ স্ট্রাইকার সুমন রেজার জোরালো একটি শট ক্রসবার ঘেঁষে বাইরে। তার ৭ মিনিট পর আরও একটি সুযোগ পেয়েছিলেন সুমন। ডান প্রান্ত থেকে জীবনের ক্রসে গোলমুখে ঠিকঠাক পা লাগাতে ব্যর্থ হয়েছেন বাংলাদেশের জার্সিতে আজ দ্বিতীয় ম্যাচ খেলা এই স্ট্রাইকার।

এ ছাড়া ডান প্রান্ত দিয়ে নেপাল রক্ষণভাগকে বারবার ঝাঁকুনি দিয়েছে উইঙ্গার সাদ উদ্দিন। করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ফিরে আসা রাজিন ধিমালকে বারবার বেসামাল করে তুলতে পারলেও ভালো ক্রসের অভাবে সাদের আক্রমণগুলোয় পূর্ণতা আসেনি।

দ্বিতীয়ার্ধে বরং নেপালের আক্রমণভাগের ধার ছিল বেশি। তবে বাংলাদেশের রক্ষণভাগে ঢুকে তালগোল পাকিয়ে ফেলে বাল গোপালের শিষ্যরা। আগের ম্যাচে জিতে থাকায় সিরিজ জিততে ড্র প্রয়োজন ছিল বাংলাদেশের। ম্যাচের শেষের দিকে গোল হজম না করার দিকেই তপু বর্মণ ইয়াসিনদের মনোযোগ ছিল বেশি। তবু ম্যাচের শেষের দিকে বদলি নবযুগের হেড সাইড পোস্টে লেগে ফিরে না এলে দর্শকদের মন খারাপ করেই মাঠ ছাড়তে হতো।

ম্যাচের ৬৯ মিনিটে অন্য রকম এক দৃশ্যও দেখা গেল মাঠে। পূর্ব গ্যালারি থেকে মাঠে নেমে আসেন এক দর্শক। মাঠে ঢুকে বাংলাদেশ অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়ার সঙ্গে সেলফি তোলার চেষ্টা করেন তিনি। নিরাপত্তাকর্মীরা মাঠ থেকে বের করে নিয়ে যান তাঁকে।

ম্যাচ শেষে আতশবাজি ফুটিয়ে সিরিজ জয় উদযাপন করেছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। প্রথম ম্যাচের সমান না হলেও দ্বিতীয় ম্যাচে হাজার দশেক দর্শক বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের গ্যালারিতে উপস্থিত থেকে জীবন-সাদ উদ্দিনের উৎসাহ দিয়ে গেছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
আপনি কী মনে করেন করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের পদক্ষেপ সন্তোষজনক?