x

এইমাত্র

  •  চলে গেলেন প্রখ্যাত কবি শঙ্খ ঘোষ
  •  ভার্চুয়াল কোর্টের ছয় কর্মদিবসে জামিন পেলেন ১২ হাজার ২৫৮ হাজতি
  •  লকডাউনে অসচ্ছল মানুষকে সহায়তায় বরাদ্দ সাড়ে ১০ কোটি টাকা
  •  লকডাউনে থাকছে যেসব বিধিনিষেধ

কোহলির পিচ্ছিল হাতে রাহুলের বিধ্বংসী সেঞ্চুরি

প্রকাশ : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৪:৪৩

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ভারতীয় ওপেনার লোকেশ রাহুলের রেকর্ড সেঞ্চুরিতে ভর করে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুকে হারিয়ে বিশাল জয় পেয়েছে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব। তবে রাহুলের সেঞ্চুরিতে বড় ভূমিকা রেখেছেন ব্যাঙ্গালুরু অধিনায়ক বিরাট কোহলি। একাই রাহুলের দুটি সহজ ক্যাচ মিস করেছেন।

বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ব্যাঙ্গালুরুকে ৯৭ রানে হারিয়েছে প্রীতি জিনতার দল। তবে এর আগে প্রথম ম্যাচে হেরেই এবারের মৌসুম শুরু করেছিল পাঞ্জাব।

এদিন টসে হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৩ উইকেট হারয়ে অধিনায়ক লোকেশ রাহুলের রেকর্ড সেঞ্চুরিতে ভর করে ২০৬ রান সংগ্রহ করে পাঞ্জাব।

২০৬ রানের মধ্যে রাহুল একাই করেছেন ১৩২। আর এটাই আইপিএলে নিজের প্রথম সেঞ্চেুরি এবং যে কোনো ভারতীয় ব্যাটসম্যানের এটাই সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংস। তবে রাহুলের এই সেঞ্চেুরিতে অবদান রেখেছেন ব্যাঙ্গালুরু অধিনায়ক বিরাট কোহলি। একবার মিড উইকেট বাউন্ডারিতে। একবার মিড অনে। কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের অধিনায়ক লোকেশ রাহুলের ক্যাচ দুই জায়গায় ফেলেছেন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর অধিনায়ক বিরাট কোহলি। সেই রাহুল শেষ পর্যন্ত ৬৯ বলে ১৪ চার ৭ ছক্কায় ১৩২ করে অপরাজিত থেকে গেলেন।

ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের মধ্যে এতদিন সবচেয়ে দ্রুততম সময়ে ২ হাজার রানের রেকর্ড ছিল শচীনের দখলে। ৬৩ ম্যাচ খেলে এই রেকর্ড গড়েছিলেন ‘লিটল মাস্টার’। তবে এই রেকর্ডের মালিক এখন রাহুল। ব্যাঙ্গালুরু ম্যাচে সেঞ্চুরি হাঁকানোর পথে এই রেকর্ড ভাঙেন তিনি। এই রেকর্ড গড়তে তার লাগলো ৬০ ম্যাচ।

রাহুলের শুরুটা অবশ্য এত বিধ্বংসী ছিল না। ইনিংসের শুরুতে খেলেছেন ১২০ স্ট্রাইক রেটে। কোহলির হাতে একমাত্র যুজবেন্দ্র চাহার ছাড়া ভয় পাওয়ার মতো বোলার নেই, রাহুলেরও জানা ছিল। উইকেটে একবার জমে গেলে যে কোনো কিছুই সম্ভব। আর বেঙ্গালুরুর ডেথ ওভারের বোলিং সব সময়ই নড়বড়ে।

তবে ডেথ ওভার পর্যন্ত রাহুলের টিকে থাকারও কথা নয়। ডেল স্টেইনকে ১৭তম ওভারে ফ্লিক করে ছক্কা মারতে চেয়েছিলেন রাহুল। কিন্তু বাউন্ডারি লাইনে ক্যাচ যায় কোহলির কাছে। বলটা তালুবন্দি করা হয়নি বিশ্বের অন্যতম সেরা ফিল্ডারের। ৫৫ বলে ৮৩ রান তখন রাহুলের।

পরের ওভারে আবার ক্যাচ হাতছাড়া! এবার নানদ্বীপ সাইনির বলে। লং অফের উপর দিয়ে ছক্কা মারতে গিয়েছিলেন। কিন্তু টাইমিংয়ে গড়বড় হওয়ায় বল যায় আকাশে। এবারও বলের নিচে ছিলেন কোহলি। কিন্তু এবারও বল বেরিয়ে গেল কোহলির পিচ্ছিল হাত গলে। ৫৯ বল খেলা রাহুল তখন ৮৯ রানে।

এরপর যা করার তা রাহুলই করে ফেলল। ৮৯ রান থেকে শেষ দুই ওভারে রাহুল পৌঁছে যান ১৩২ রানে। শেষ চার ওভারে পাঞ্জাব নিয়েছে ৭৪ রান! যেখানে ১৮০ অসম্ভব মনে হচ্ছিল, সেখানে চোখের পলকে পাঞ্জাবের রান ২০৬!

এই সেঞ্চুরির দিনে শচীন টেন্ডুলকারের একটি রেকর্ড ভাঙেন রাহুল। ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের মধ্যে এতদিন সবচেয়ে দ্রুততম সময়ে ২ হাজার রানের রেকর্ড ছিল শচীনের দখলে। ৬৩ ম্যাচ খেলে এই রেকর্ড গড়েছিলেন ‘লিটল মাস্টার’। তবে এই রেকর্ডের মালিক এখন রাহুল। ব্যাঙ্গালুরু ম্যাচে সেঞ্চুরি হাঁকানোর পথে এই রেকর্ড ভাঙেন তিনি। এই রেকর্ড গড়তে তার লাগলো ৬০ ম্যাচ।

পাঞ্জাবের দেয়া ২০৬ রানের জবাবে ব্যাট হাতে নেমে ১৭ ওভারে মাত্র ১০৯ রানেই অলআউট হয়ে যায় কোহলির নেতৃত্বাধীন দল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু। শেষ পর্যন্ত রাহুলের রানটাও করতে পারেনি কোহলির দল। অবশেষে ৯৭ রানের বিশাল এক জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে রাহুলের নেতৃত্বাধীন দল কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব।

এই জয়ের দিনে ম্যাচ সেরা হয়েছেন লোকেশ রাহুল।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
আপনি কী মনে করেন করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের পদক্ষেপ সন্তোষজনক?