x

এইমাত্র

  •  গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় নতুন সংক্রমিত ২৬৬৬ জন, মৃত ৪৭ জন
  •  সাহেদ-সাবরিনার ব্যাংক হিসাব জব্দ
  •  মহামারি করোনাভাইরাসে বিশ্বব্যাপী মৃত্যু ৫ লাখ ৬৭ হাজার, আক্রান্ত ১ কোটি ২৮ লাখেরও বেশি
  •  ১০ নদীর ১৫ পয়েন্টের পানি বিপদসীমার ওপরে
  •  রায়হান কবিরের ওয়ার্ক পারমিট বাতিল করেছে মালয়েশিয়া

চলে গেলেন বাংলাদেশে ক্রিকেটের কান্ডারি রেজা-ই-করিম

প্রকাশ : ২২ মার্চ ২০২০, ১৬:৪৯

সাহস ডেস্ক

না ফেরার দেশে চলে গেলেন বাংলাদেশের ক্রিকেটের শুরুর দিকের অন্যতম কান্ডারি রেজা-ই-করিম। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৩ বছর।

আজ ২২ মার্চ (রবিবার ) ভোরে রাজধানীর একটি হাসপাতালে তিনি শেষনিশ্বাস ত্যাগ করেছেন বলে নিশ্চিত করেছেন তার ছেলে নাজমুল করিম।

রেজা-ই-করিমের ছেলে নাজমুল করিম জানিয়েছেন, ‘বাবা কয়েক দিন ধরেই একটু বেশি অসুস্থ ছিলেন। আজ ফজরের সময় তিনি আমাদের ছেড়ে চলে গেছেন।’

নাজমুল আরো জানিয়েছেন, ‘আজ ফার্মগেটের বাইতুশ শরফ জামে মসজিদে বাদ জোহর রেজা-ই-করিমের জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। এরপর মিরপুর বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে তাঁকে সমাহিত করা হবে।’

বহুদিন ধরেই বিভিন্ন শারীরিক জটিলতায় ভুগছিলেন দেশের ক্রিকেটের দুঃসময়ের অন্যতম এই সংগঠক। দুটি কিডনিরই কার্যক্ষমতা বেশির ভাগই হারিয়েছিলেন। মস্তিষ্কের রক্তক্ষরণেও আক্রান্ত হয়েছিলেন একবার। গত কয়েকটা বছর তাঁর কেটেছে হাসপাতালে যাওয়া-আসার মধ্যেই। সঙ্গে ছিল শ্বাসকষ্ট জনিত রোগ। ক্যানসারেও আক্রান্ত ছিলেন। মণিপুরী পাড়ার বাসায় তাঁর জীবনের শেষ দিনগুলি কেটেছে ওষুধ আর চিকিৎসকের সান্নিধ্যেই।

উল্লেখ্য, রেজা-ই-করিম বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের প্রথম কার্যনির্বাহী সম্পাদক, সাবেক সাধারণ সম্পাদক। দেশের মাটিতে তিনিই ছিলেন বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচ আম্পায়ার।

আশির দশকে জাতীয় ক্রিকেট দলের নির্বাচক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন রেজা-ই-করিম। নব্বইয়ের দশকের শুরুতে তিনি বোর্ডের কোষাধ্যক্ষ হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন।

বাংলাদেশের ক্রিকেট যখন শিশু, সেই সময়ে তিনিই ছিলেন কান্ডারি। তখন থেকেই প্রায় এক হাতে দেশের ক্রিকেটকে টেনে নিয়ে গেছেন রেজা। বিদ্যুৎহীন বোর্ড অফিসে বসে মোমবাতির আলোয় কাজ চালিয়েছেন, আর্থিক দুরবস্থা মেটাতে ধরনা দিয়েছেন সরকারের কাছে, ধন্যাঢ্য ব্যক্তিদের কাছে।

পাকিস্তান আমলে ঈগলেটস দলের খেলোয়াড় থাকা অবস্থাতেই তাঁর সংগঠক হিসেবে কাজে জড়িয়ে পড়া। স্বাধীনতার পর বাংলাদেশের ক্রিকেটকে প্রায় ‘শূন্য’ থেকে যাঁরা শুরু করেছিলেন, তাঁদের মধ্যে একজন ছিলেন রেজা-ই-করিম। তিনি যে সময় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের কার্যনির্বাহী সম্পাদক হিসেবে কাজ শুরু করেছিলেন, তখন বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামের একটি কক্ষে ছিল ক্রিকেটের কার্যালয়। আসবাবপত্র হিসেবে ছিল একটি করে টেবিল-চেয়ার আর একটি স্টিলের আলমারি। সেখানেই রাখা হতো দেশের ক্রিকেটের সব প্রয়োজনীয় কাগজপত্র।

১৯৭৬ সালে বাংলাদেশের আইসিসির সহযোগী সদস্যপদ পাওয়ার পেছনেও তাঁর অবদান আছে। ১৯৭৭ সালে বিখ্যাত মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাব (এমসিসি) বাংলাদেশ সফর করে। সেটিই ছিল কোনো বিদেশি ক্রিকেট দলের প্রথম বাংলাদেশ সফর। এমসিসিকে যে আমন্ত্রণপত্রটি পাঠানো হয়েছিল, সেটির খসড়াও করেছিলেন রেজা-ই-করিম। দেশের মাটিতে এমসিসির বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচে আম্পায়ার হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছিলেন রেজা-ই-করিম।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত