x

এইমাত্র

  •  গ্রামে খেতে পচছে সবজি, ঢাকায় বিক্রি হচ্ছে ১০ গুণ দামে
  •  দেশে ২৪ ঘন্টায় আক্রান্ত আরও ১১২ জন, মৃত্যু ১
  •  রাজধানীতে মসজিদের এক ইমামের শরীরে করেনাভাইরাস ধরা পড়েছে
  •  চট্টগ্রাম বন্দরে সাইফ পাওয়ারটেকের ত্রাণ বিতরণ
  •  টিসিবির ট্রাকে লম্বা লাইন, শনিবার থেকে ৬০ টাকায় ছোলা

শালককে বিধ্বস্ত করে দ্বিতীয়তে এসেছে মিউনিখ

প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি ২০২০, ১৬:৩৭

সাহস ডেস্ক

জার্মানের বুন্দেস লিগায় শালককে গোলের বন্যায় ভাসিয়ে পয়েন্ট টেবিলের দ্বিতীয়তে উঠে এসেছে গত সাত বছরে টানা সাতবারের চ্যাম্পিয়ন স্বাগতিক বায়ার্ন মিউনিখ।

২৫ জানুয়ারি (শনিবার) অ্যালিয়েঞ্জ অ্যারেনায় শালককে ৫-০ গোলে হারিয়েছে বায়ার্ন মিউনিখ।

যদিও এবার বায়ার্নের অবস্থা তেমন ভালো না। ফর্মহীনতা ও মৌসুমের মাঝপথে কোচ বদলের কারণে এখনো নিজেদের হারিয়ে খুঁজছে বায়ার্ন। আর এ সুযোগটা নিচ্ছে আরবি লাইপজিগ, বরুসিয়া মনশেনগ্লাডবাখের মতো ক্লাবগুলো। পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে আছে লাইপজিগ। তবে শালককে হারিয়ে আবারও শিরোপা দৌড়ে ভালোভাবেই ফিরে এল জার্মান চ্যাম্পিয়নরা। শীর্ষস্থানীয় লাইপজিগের সঙ্গে বায়ার্ন এখন ১ পয়েন্ট ব্যবধানে পিছিয়ে।

যথারীতি এ ম্যাচেও বায়ার্নের হয়ে গোল করেছেন পোলিশ স্ট্রাইকার রবার্ট লেফান্ডভস্কি। দুরন্ত ফর্মে থাকা পোলিশ স্ট্রাইকার মৌসুমে করে ফেললেন ২১ গোল। এ মৌসুমে জার্মান লিগে সর্বোচ্চ গোলদাতা লাইপজিগের জার্মান স্ট্রাইকার টিমো ভেরনারকে আবারও পেছনে ফেললেন তিনি।

প্রথমার্ধ শেষের ঠিক আগে জার্মান মিডফিল্ডার লিওন গোর্তেকার পাস থেকে গোল করেন বায়ার্নের পোড় খাওয়া যোদ্ধা টমাস মুলার। ম্যাচের ৫০তম মিনিটে আর সহকারী নয়, মূল গোলদাতার ভূমিকায় আবির্ভূত হন গোর্তেকা। লেফান্ডভস্কির কাছ থেকে বল পেয়ে ৫৮তম মিনিটে ব্যবধান ৪-০ করেন স্প্যানিশ মিডফিল্ডার থিয়াগো আলকান্ত্রা।

যে হারে গোল করছিল বায়ার্ন, মনে হচ্ছিল সাত-আটটা গোল অনায়াসে হয়ে যাবে। জার্মান জাতীয় দলের খেলাকে যদি ‘যন্ত্র’ বলে মনে করা হয় দেশটির ক্লাব ফুটবলে বায়ার্ন তাহলে এর সেরা প্রতিচ্ছবি। তবে চতুর্থ গোলের পর আক্রমণের ধার কমায় বায়ার্ন। ম্যাচের ৮৯তম মিনিটে শেষ গোলটা করে দলকে ৫-০ গোলের জয় এনে দেন সার্জ গেন্যাব্রি।

ঐতিহ্যগতভাবেই বায়ার্নের সঙ্গে শালকের প্রতিদ্বন্দ্বিতা আছে সব সময়। শত্রুতার ঝাঁজটা কদিন আগে বেড়েছে তরুণ জার্মান গোলরক্ষক আলেক্সান্ডার নুবেলের কারণে। জার্মানির অন্যতম প্রতিভাবান এ গোলরক্ষক কিছুদিন আগেও শালকের অধিনায়ক ছিলেন। কিন্তু আগামী জুনে তাঁর শালকের সঙ্গে চুক্তি শেষ হচ্ছে। শালকে হাজার চেষ্টা করেও নুবেলের সঙ্গে চুক্তি নবায়ন করতে পারেনি।

বায়ার্নের আগ্রহ দেখে নুবেল আর চুক্তি নবায়ন করার আগ্রহ পাননি। কিছুদিন আগে আনুষ্ঠানিকভাবে বায়ার্ন জানিয়েছে, শালকে অধিনায়ককে আগামী জুনে দলে টানতে চলেছে তারা। নিজেদের অধিনায়কের এহেন আচরণ ভালো লাগেনি শালকে সমর্থকদের। নুবেলের কাছ থেকে শালকের অধিনায়কত্বও কেড়ে নেওয়া হয়েছে। নয় বছর আগে ঠিক একই ভাবে আরেক গোলরক্ষক ম্যানুয়েল নয়্যারকে শালকে থেকে দলে এনেছিল বায়ার্ন। এবার নুবেল যাওয়ার ফলে দুই দলের মধ্যে শত্রুতাটা আরেকটু বেড়েছে।

এই জয়ে ১৯ ম্যাচে ৩৯ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দ্বিতীয়তে উঠে এসেছে বায়ার্ন মিউনিখ। তাদের সমান ম্যাচ খেলে ৪০ পয়েন্ট নিয়ে ১ পয়েন্ট ব্যবধানে টেবিলের শীর্ষে আছে লিপজিগ। সমান ম্যাচে ৩৩ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের ৫ম স্থানে আছে শালক।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত