স্প্যানিশ সুপার কাপের চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদ

প্রকাশ : ১৩ জানুয়ারি ২০২০, ১৩:১৪

সাহস ডেস্ক

স্প্যানিশ সুপার কাপের ফাইনালে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের পর পেনাল্টি শুটআউটে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদকে হারিয়ে শিরোপা চ্যাম্পিয়ন হয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। আর দ্বিতীয় মেয়াদে রিয়ালের কোচের দায়িত্ব নেওয়ার পর প্রথম শিরোপা জয়ের স্বাদ নিয়ে স্পেনে ফিরছেন জিনেদিন জিদান।

১২ জানুয়ারি (রবিবার) দিবাগত রাতে সৌদি আরবের কিং আব্দুল্লাহ সিটি স্পোর্টস স্টেডিয়ামে ম্যাচের নির্ধারিত সময়ে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে গোল শূন্য ড্র করে রিয়াল মাদ্রিদ। পরে পেনাল্টি শুটআউটে দিয়েগো সিমিওনের শিষ্যদের বিপক্ষে ৪-১ গোলের ব্যবধানে জয় পায় জিনেদিন জিদানের শিষ্যরা।

এদিন দুই দলই গোলের ভালো সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে পারেনি। নির্ধারিত সময়ের খেলা শেষে ম্যাচ গড়ায় অতিরিক্ত সময়ে। এরপর পেনাল্টিতে ম্যাচ জেতে রিয়াল।

যদিও ম্যাচের প্রথম সুযোগটা অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদই পেয়েছিল। রামোসের ভুল পাস ধরে রিয়ালের রক্ষণে হানা দিলেও আসল কাজটা করতে পারেননি হোয়াও ফেলিক্স। শুরুতে সিমিওনের শিষ্যরা এগিয়ে থাকলেও ক্রমেই গুছিয়ে নিতে থাকে রিয়াল। সুযোগও ধরা দেয়। কিন্তু প্রথমার্ধের শেষদিকে কর্নার কিকে হেড করেও গোলের দেখা পাননি কাসেমিরো।

দ্বিতীয়ার্ধে দুই দলের কোচই খেলোয়াড় বদলানোর সিদ্ধান্ত নেন। হেক্টর হেরেরাকে তুলে নিয়ে ভিতোলোকে নামান সিমিওনে আর ইসকোর জায়গায় রদ্রিগোকে সুযোগ দেন জিদান। কিন্তু এসবে কাজের কাজ তেমন কিছুই হয়নি। যদিও ফেদে ভালভার্দে একটা সুযোগ হেলায় নষ্ট না করলে জিদানের মুখে আগেই হাসি ফুটতো।

নির্ধারিত সময়ের পুরো ৯০ মিনিট খেলে দুই দলের কেউ বল জালে জড়াতে পারেনি। অতিরিক্ত ৩০ মিনিটের বাঁশি বাজায় রেফারি। সৌদি আরবের জেদ্দায় এই দুই দলের খেলোয়াড়দের কেউ অতিরিক্ত সময়েও গোল দিতে পারেনি। বরং এক ফ্রি কিক নিয়ে নাটক থামাতে গিয়ে লাল কার্ড দেখাতে হয় রেফারিকে।

ম্যাচের ১১৫তম মিনিটের মাথায় ভালভার্দে লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়লে ১০ জনের দলে পরিণত হয় রিয়াল মাদ্রিদ। ১০ জনের মাদ্রিদকে পেয়েও গোল দিতে ব্যর্থ হয় সিমিওনের শিষ্যরা।

এরপর ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকারে। টাইব্রেকারে জিদানের দল সবগুলো স্পট কিকেই সফল। পেনাল্টির প্রথম শট নেন কার্বাহাল। রিয়ালের হয়ে ঠিকঠাক বল জালেও জড়ান তিনি। এরপর আসে অ্যাটলেটিকোর পালা। রিয়ালের নগর প্রতিদ্বন্দ্বীর হয়ে প্রথম শট নেন সাউল; প্রথম শটটিই মিস করে বসেন তিনি! এরপর অ্যাটলেটিকোর হয়ে দ্বিতীয় শটটি মিস করেন পার্তে।

বেলজিয়ান গোলরক্ষক কুর্তোয়া অ্যাতলেটিকোর দুটি শট ঠেকিয়ে দিয়ে নায়ক বনে যান। অবশ্য জয়সূচক স্পট কিকটি আসে রিয়াল অধিনায়ক রামোসের পা থেকে। শেষ পর্যন্ত ৪-১ গোলের জয় নিয়ে শিরোপা উৎসব করে রিয়াল মাদ্রিদ।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
আপনি কী মনে করেন করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের পদক্ষেপ সন্তোষজনক?