x

এইমাত্র

  •  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্জন হলে জানালার গ্রিলে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় একজনের মৃতদেহ উদ্ধার

লঙ্কানদের হারিয়ে সিরিজ বাঁচিয়ে রাখল বাংলাদেশ

প্রকাশ : ১০ অক্টোবর ২০১৯, ১৯:৪১

আনঅফিসিয়াল তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে স্বাগতিক শ্রীলঙ্কা ‘এ’ দলের বিপক্ষে কষ্টার্জিত জয় পেয়েছে বাংলাদেশ ‘এ’ দল। এর আগে প্রথম ম্যাচে স্বাগতিকদের কাছে হেরেছিল মিঠুন বাহিনীরা।

১০ অক্টোবর (বৃহস্পতিবার) প্রামাদাসা স্টেডিয়ামে লঙ্কানদের ১ উইকেটে হারিয়ে সিরিজে ১-১ সমতা ফিরিয়েছে মোহাম্মদ মিঠুনের নেতৃত্বাধীন দল।

এদিন টস জিতে আগে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ অধিনায়ক মোহাম্মদ মিঠুন। প্রথমে ব্যাটিং পেয়ে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ২২৬ রান সংগ্রহ করে লঙ্কানরা। দলের হয়ে দুই উদ্বোধনীর জুটি লম্বা করতে দেননি পেসার আবু হায়দার রনি। ইনিংসের ৭ ওভার ৩ বলের মাথায় পাথুম নিশাঙ্কাকে ফেরান ১৫ রানে। আরেক ওপেনার লাহিরু উদারাকে ২৩ রানে ফেরান আরেক পেসার এবাদত হোসেন।

তিন নম্বরে ব্যাট করতে আসা কামিন্ডু মেন্ডিস অধিনায়ক আশান প্রিয়াঞ্জনকে নিয়ে হাল ধরার চেষ্টা করলেও ব্যর্থ হন প্রিয়াঞ্জন।
মাত্র ৭ রানে প্রিয়াঞ্জনের বিদায়ের পর প্রিয়মল পেরেরা মিলে বাংলাদেশি বোলারদের তাণ্ডব থামানোর চেষ্টা করেন। তাতে সফলও হন দু’জন।

মেন্ডিস করেন ৬৭ বলে ৬১ আর পেরেরা করেন ৬২ বলে ৫২ রান। এই দুইজনের বিদায়ের পর বাংলাদেশকে বড় লক্ষ্য দেয়ার আশাটা ফিকে হয়ে যায় লঙ্কানদের। শেষ পর্যন্ত ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে ২২৬ রান তুলে শ্রীলঙ্কা ‘এ’ দল।

বাংলাদেশের হয়ে ২টি করে উইকেট নেন আবু হায়দার রনি, এবাদত হোসেন ও সানজামুল ইসলাম। ১টি করে উইকেট নেন আবু জায়েদ, সাইফ হাসান ও আফিফ হাসান।

লঙ্কানদের দেওয়া ২২৭ রানের লক্ষ্য তারা করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে পৌঁছায় বাংলাদেশ। দলের হয়ে দলীয় ১৫ রানেই ওপেনার সাইফ হাসানের উইকেট হারায় বাংলাদেশ। তবে প্রাথমিক ধাক্কাটা বেশ ভালোভাবেই সামাল দেন মোহাম্মদ নাঈম ও নাজমুল হোসেন শান্ত। দুজনে মিলে যোগ করেন ৫৯ রান।

২১ রানের ইনিংস খেলে শান্ত বিদায় নেওয়ার পর মোহাম্মদ মিঠুনের সঙ্গে জুটি গড়েন নাঈম। এর মাঝে ফিফটিও তুলে নেন তিনি। ফিফটির দেখা পেয়েছেন অধিনায়ক মিঠুনও। এছাড়া আফিফ হোসেনের ব্যাট থেকে আসে ২৪ রান আর নুরুল হাসান করেন ২৫ রান।

দারুণভাবে জয়ের দিকে ছুটতে থাকা বাংলাদেশ আসল ধাক্কা খায় শেষ ১০ ওভারে এসে। ৪১তম ওভারে নুরুল হাসান বিদায় নেওয়ার ২ ওভার পর ৫২ রান করা মিঠুনও ড্রেসিংরুমের পথ ধরেন। শেষ ৬ ওভারে দরকার ছিল ৩৫ রান। কিন্তু ৪৭তম ওভার থেকে শুরু করে শেষ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে কাজটা কঠিন করে ফেলে বাংলাদেশ।

শেষ ওভারে বাংলাদেশের প্রয়োজন ছিল ৯ রান। হাতে ২ উইকেট। এই অবস্থায় প্রথম দুই বলে সিঙ্গেল নেওয়ার পর তৃতীয় বলে বাউন্ডারি হাঁকান ইবাদত হোসেন। এরপর এক সিঙ্গেল ও এক ওয়াইডের পর ক্যাচ তুলে দিয়ে বিদায় নেন ইবাদত। এক বলে ১ রান দরকার, হাতে আছে ১ উইকেট। সিঙ্গেল নিয়ে কাজটা শেষ করেন সানজামুল ইসলাম।

শ্রীলঙ্কার হয়ে ৩টি উইকেট নিয়েছেন রামেশ মেন্ডিস। ২টি করে উইকেট নিয়েছেন ফের্নান্দো, করুনারত্নে ও প্রিয়ঞ্জন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত