কাতার বিশ্বকাপের আসরটি হবে ঐতিহাসিক ও তুলনাহীন: আল-খাতার

প্রকাশ : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৫:৪৬

বিশ্বকাপ আয়োজকের প্রধান নির্বাহীর (সিইও) দায়িত্বে থাকা নাসের আল-খাতার জানিয়েছেন, ‘বৈশ্বিক এই আসরটি হবে ঐতিহাসিক ও তুলনাহীন। কাতারের সংস্কৃতি ও বিনোদনে ভরপুর দেশটিতে সারা বিশ্ব থেকে আসা দর্শকরা বুদ হয়ে থাকবেন।’

মধ্যপ্রাচ্যের প্রথম কোনো দেশ হিসেবে কাতার আয়োজন করছে ২০২২ ফুটবল বিশ্বকাপের। দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থের এই টুর্নামেন্টকে ঘিরে সম্ভাব্য সবকিছুই করছে আরবের ধনকুবের কাতার। এছাড়া এশিয়ার দ্বিতীয় দেশ যারা কিনা ফুটবলের এই মহাযজ্ঞ পরিচালনা করবে। যেখানে দর্শক-সমর্থকদের জন্য সুখবর হচ্ছে আসরের ভেন্যুগুলো প্রায় পাশাপাশি থাকবে। ফলে ভ্রমণে কোনো ক্লান্তি আসবে না।

গোল ডট কম-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে আল-খাতার বলেন, ‘কাতারের বিশ্বকাপটি ঐতিহাসিক হতে যাচ্ছে। আমরা এটাকে অতুলনীয় করবো। প্রচুর মানুষ আমাদের সংস্কৃতির সঙ্গে পরিচয় হবে, যার আনন্দ তারা পূর্বে পায়নি। এটা একটা মরুভূমি অঞ্চল, এই মরুভূমিতেই উৎসবে পরিণত হবে। এখানে সমুদ্রে গিয়ে সাঁতার কাটারও ব্যবস্থা থাকবে।’

আল-খাতার আরো বলেন, ‘এখানে আমাদের খাবারের ভিন্নতা রয়েছে। আর কাতারে মিশ্র জাতের বসবাস, এখানে ১০০টিরও বেশি দেশের মানুষ থাকে। কাতারে অসাম্প্রদায়িক সংস্কৃতি গড়ে উঠেছে। আর এখানে বিনোদনের জন্য কোনো কিছুর অভাব হবে না। প্রতিটি স্টেডিয়ামই খুব কাছে ও আনন্দ উপভোগের প্রচুর সুযোগ থাকবে। আমরা এই বিশ্বকাপে অসাধারণ কিছু করতে চলেছি।’

২০২২ সালের ২১ নভেম্বর বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। আর ১৮ ডিসেম্বর ফাইনালের মধ্যদিয়ে আসরটির পর্দা নামবে। মোট আটটি ভেন্যুতে খেলা হওয়ার কথা রয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
আপনি কী মনে করেন করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের পদক্ষেপ সন্তোষজনক?