টুর্নামেন্টটা এত লম্বা যেখানে রিজার্ভ ডে নাই: রোডস

প্রকাশ : ১২ জুন ২০১৯, ১২:২২

সাহস ডেস্ক

বিশ্বকাপে নিজেদের চতুর্থ ম্যাচে বৃষ্টির কারণে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশের ম্যাচটি পরিত্যাক্ত হয়ে পয়েন্ট ভাগাভাগি হয়েছে। এর আগে ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টানা হেরে অনেকটাই পিছিয়ে পড়া বাংলাদেশকে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে জিততেই হতো। এমনটা পরিকল্পনা নিয়েই এগিয়েছে টাইগাররা। কিন্তু সব পরিকল্পনা ভেসে গেলো বৃষ্টিতে।

১১ জুন (মঙ্গলবার) ব্রিস্টলের বৃষ্টির কারণে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কার ম্যাচটি পরিত্যাক্ত হয়েছে।

গত ১০ জুন (সোমবার) ওয়েস্ট ইন্ডিজ-দক্ষিণ আফ্রিকার ম্যাচেরও একই ফল হয়।

এখন পর্যন্ত ১৬টি ম্যাচের ৩টি ভেসে গেছে বৃষ্টিতে। এর আগে ১৯৯২ ও ২০০৩ বিশ্বকাপে দুটি করে ম্যাচ পরিত্যক্ত হয় যা বিশ্বকাপের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি ভেসে যাওয়া ম্যাচের সংখ্যা। কিন্ত চলতি বিশ্বকাপে তা ছাড়িয়ে গেছে এখনই। অথচ এত বড় আয়োজনে নেই কোনো রিজার্ভ ডে।

ইংলিশ আবহাওয়া সম্পর্কে আইসিসির জানা থাকা স্বত্ত্বেও নেই কোনো রিজার্ভ ডে। তাই ম্যাচ একবার পরিত্যক্ত হলে পয়েন্ট ভাগাভাগি ছাড়া আর কোনো উপায় রাখেনি আইসিসি। শুধু সেমিফাইনাল আর ফাইনালের জন্য রাখা হয়েছে রিজার্ভ ডে। আর আইসিসির এমন উদাসীনতায় বেশ এক চোট শোনালেন বাংলাদেশের প্রধান কোচ স্টিভ রোডস।

ম্যাচ পরিত্যক্ত হওয়ার পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে আইসিসিকে খোঁচা দিয়ে রোডস বলেন, ‘আমরা চাঁদে লোক পাঠাতে পারি, কেন রিজার্ভ ডে রাখতে পারি না, যখন আমরা জানি যে টুর্নামেন্টটা এত লম্বা।’

কোনোভাবেই নিজের হতাশা ঢাকার চেষ্টা করেননি প্রধান কোচ। বলেন, ‘এই ম্যাচ থেকে ২ পয়েন্ট তুলে নেওয়ার লক্ষ্য ছিল আমাদের। কিন্তু আমরা ১ পয়েন্ট পেলাম, যা ভীষণ হতাশাজনক। যদিও জানতাম শ্রীলঙ্কা কঠিন প্রতিপক্ষ, তাদের হালকাভাবে নেওয়ার সুযোগ নেই। তবে আমরা আসলে আজ ১ পয়েন্ট হারিয়েছি। যা আশা করিনি।’

তবে বাস্তবতা মেনে নিয়ে বাংলাদেশ কোচ বলেন, ‘আবহাওয়ার ওপরে তো কারও হাত নেই। এখন আর আমাদেরও পেছনে তাকানোর উপায় নেই। আমাদের সামনের ম্যাচগুলোর দিকে তাকাতে হবে, পরের ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারাতে হবে।’

বৃষ্টিতে ম্যাচ ভেসে যাওয়ায় বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজাও হতাশা প্রকাশ করেন। বলেন, ‘এটা সব দলের জন্যই হতাশার। মাঠে এসে খেলতে না পারাটা অবশ্যই হতাশার।’

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
আপনি কী মনে করেন করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের পদক্ষেপ সন্তোষজনক?