রোমার কাছে ২-০ গোলে হেরেছে জুভেন্টাস

প্রকাশ : ১৩ মে ২০১৯, ১৫:২১

সাহস ডেস্ক

ইতালিয়ান সিরি আ’ লিগে আগেভাগেই শিরোপা নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল জুভেন্টাসের। তবে মৌসুমের শেষদিকে এসে যেন খেই হারিয়ে ফেলেছে দলটি। চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে আয়াক্সের কাছে হেরে বিদায় নেয়া দল এসএ রোমার কাছে হেরে আরো বড় লজ্জা নিয়ে মাঠ ছাড়ে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর দল।

১২ মে (রবিবার) দিবাগত রাতে রোমার মাঠ স্টাডিও অলিম্পিকোতে স্বাগতিকদের কাছে ২-০ গোলে হেরেছে টানা আটবারের চ্যাম্পিয়নরা। লিগের শেষ সাত ম্যাচে জুভদের এটা তৃতীয় পরাজয়।

এদিন ম্যাচের বেশিরভাগ সময়ই বল দখলে রাখে জুভেন্টাস। প্রথমার্ধেই গোল করার ভালো সুযোগ পায় লিগ চ্যাম্পিয়নরা। কিন্তু রোমার গোলরক্ষকের দৃঢ়তায় গোলবঞ্চিত হতে হয় জুভদের। ম্যাচের ১৬ মিনিটে জুভেন্টাসের আর্জেন্টাইন তারকা পাওলো দিবালার শট দুর্দান্ত দক্ষতায় ঝাঁপিয়ে কর্নারের বিনিময়ে রক্ষা করেন রোমার গোলরক্ষক অ্যান্তোনিও মিরান্তে। তবে দুই মিনিট পর পাল্টা আক্রমণ থেকে গোল প্রায় পেয়েই গিয়েছিল রোমা। তবে ইতালিয়ান মিডফিল্ডার লরেঞ্জো পেল্লেগ্রিনির শট পোস্টে লেগে প্রতিহত হলে বেঁচে যায় জুভেন্টাস। ম্যাচের ২৮ মিনিটে আবারও জুভেন্টাসকে গোলবঞ্চিত করেন রোমার গোলরক্ষক। দিবালার আরেকটি জোরালো শট ঝাঁপিয়ে পড়া মিরান্তের হাতে লেগে পোস্টে বাধা পায়।

গোলশূন্য অবস্থায় প্রথমার্ধের বিরতিতে যায় দুই দল। দ্বিতীয়ার্ধেও লম্বা সময় অপেক্ষা করতে হয় গোলের দেখা পেতে। ম্যাচের ৭৯তম মিনিটে কাঙ্ক্ষিত গোলের দেখা পায় দর্শক। তবে জুভেন্টাস নয়, গোল করে রোমা। এডিন জেকোর পাসে বল পেয়ে জুভদের ডি-বক্সে ঢুকে দারুণ বুদ্ধিমত্তায় গোলরক্ষকের মাথার ওপর দিয়ে জালে পাঠান আলেসান্দ্রো ফ্লোরেঞ্জি। ম্যাচে ১-০ গোলে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ে জুভেন্টাসের কফিনে শেষ পেরেকটা ঠুকে দেন এডিন জেকো। দারুণ এক পাল্টা আক্রমণে সতীর্থের বাড়ানো বল ডি-বক্সে পেয়ে জোরালো শটে গোল করেন এই বসনিয়ান ফরোয়ার্ড।

কিছুক্ষণ পরেই ম্যাচে শেষ হওয়ার বাঁশি বাজান রেফারি। লিগ চ্যাম্পিয়ন জুভেন্টাসকে ২-০ গোলে হারানোর তৃপ্তি নিয়ে মাঠ ছাড়ে রোমা।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
আপনি কী মনে করেন করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের পদক্ষেপ সন্তোষজনক?