x

এইমাত্র

  •  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্জন হলে জানালার গ্রিলে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় একজনের মৃতদেহ উদ্ধার

পোশাকের অনুষঙ্গ বোতাম

প্রকাশ : ১৮ মার্চ ২০১৯, ১৬:২৯

সাহস ডেস্ক

বোতাম তো পোশাকের অনুষঙ্গ। একরকম অপরিহার্যই বটে। ছেলেদের শার্টে তো বোতাম থাকেই। মেয়েদের পোশাকে বোতামের ব্যবহারও নানাবিধ। ডিজাইনাররা নিত্যনতুন পোশাক সাজানোর উপায় খুঁজে নেন।  তবে বোতামের ব্যবহারে বৈচিত্র্য থাকলে তা হয়ে উঠতে পারে নতুনত্ব।

ফ্যাশন ডিজাইনার লিপি খন্দকার বলেন, প্রয়োজনে যেমন একটি পোশাকে বোতাম ব্যবহার করা হয়, আবার পোশাককে নকশায় সমৃদ্ধ করার একটি উপাদানও হতে পারে বোতাম।

কাপড়ের বোতাম আবার কাপড়ের সঙ্গে মিলিয়ে কোনো কাপড় দিয়েই বোতাম তৈরি করা যেতে পারে। সাধারণ একটি কাপড়ে শো-বোতাম (দেখা যাবে এমন বোতাম) ব্যবহার করতে চাইলে একটু যত্ন নিয়ে বোতাম তৈরি করা ভালো। এমব্রয়ডারি, ছোট ছোট প্রিন্ট কিংবা বিভিন্ন রকম ভাঁজ ব্যবহার করে তৈরি হতে পারে বোতাম। বোতামের ভেতরে কিছু দিয়ে পেঁচিয়ে গোল করে নেওয়া যায়। অনেক রকম ‘নট’ বা গিঁট দিয়ে বোতাম করা যায়। শুধু নকশাদার বোতাম দিয়েই একটি সাধারণ পোশাককে সুন্দর করে তোলা যায়। জাঁকজমক বোতাম ব্যবহার করতে চাইলে সাধারণ কাপড় (যেমন সুতি) বেছে নিন।

পোশাকের যেকোনো অংশেই বোতাম ব্যবহার করা যেতে পারে। কলার, হাতা বা পকেটে তো বটেই, পোশাকের জমিনেও ডিজাইন হিসেবে বোতাম বসানো যেতে পারে।

বাজারে পাবেন নানান ধরনের বোতাম। কাঠের বোতাম রয়েছে। আরও আছে ধাতব বোতাম। কোনোটির রুপালি রং, কোনোটির তামাটে; কোনোটি হয়তো আনে ‘অ্যান্টিক’ লুক। পাথরের কারুকার্যময় বোতামও মিলবে বাজারে। কোনো বোতামে একটিই বড় পাথর; কোনোটিতে আবার বেশ কতগুলো পাথর দিয়ে নকশা করা। লাল, নীল, হলুদ, টিয়া রঙের ঝকমকে পাথর আছে বোতামে। কোনোটিতে আবার ভেলভেট প্যাঁচানো। কোনোটিতে ব্যবহার হয়েছে ছোট ছোট পুঁতি। কোনোটি গোল, কোনোটি চৌকো, কোনোটি ত্রিভুজ আকৃতির; পাতার মতো আকারও আছে। কোনোটি ছোট, কোনোটি বেশ বড়।

রাজধানীর প্রিয়াঙ্গন শপিং সেন্টারে পাওয়া গেল বাহারি বোতামের খোঁজ। কিছু বোতাম শুধুই দেখনদারি বোতাম (শো-বোতাম), কিছু বোতাম আবার সত্যিই কাজের। ঝোলানো বোতামসহ নানান ধরনের বোতাম পাবেন অপরূপ ম্যাচিং সেন্টারে। ডিজাইনভেদে প্রতিটি বোতামের দাম পড়বে ৩ টাকা থেকে ১২০ টাকা।

সাহস২৪.কম/ইতু

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত