x

এইমাত্র

  •  লন্ড‌নে নিজ বাসা থেকে অর্থমন্ত্রীর জামাতার মরদেহ উদ্ধার
  •  নুরের বিরুদ্ধে তথ্য-প্রযুক্তি আইনে শাহবাগ থানায় মামলা
  •  হাসপাতালে ভর্তি করোনা রোগীরা দ্রুত মারা যাচ্ছেন: আইইডিসিআর
  •  জ্বর আসেনি, ভালো আছেন খালেদা জিয়া: চিকিৎসক
  •  লকডাউনের মেয়াদ আরও ৭ দিন বাড়তে পারে

জলহস্তী তৃতীয় বৃহত্তম স্থলচর প্রাণী

প্রকাশ : ০৭ মার্চ ২০২১, ২০:৩৬

সাহস ডেস্ক
ছবি-আবুল বাশার শিবলী

জলহস্তী (Hippopotamus) পৃথিবীর তৃতীয় বৃহত্তম স্থলচর প্রাণী। হাতি ও সাদা গণ্ডারের পরেই এই বৃহদাকার প্রাণীর অবস্থান। কিন্তু স্থলচর প্রাণী হয়েও এর নাম জলহস্তী হলো কেনো? কারণ এরা এদের জীবনের ৮০% সময় ব্যয় করে পানিতে। প্রথমেই অবাক হচ্ছেন? তাহলে চলুন এই বিস্ময়কর প্রাণী সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে আসি। জলহস্তী দেখতে অনেকটা শুকরের সাথে মিলে গেলেও এরা কিন্তু শুকরের থেকে সম্পূর্ণ আলাদা। জলহস্তীর রয়েছে বিশাল আকারের দুটি নিচের চোয়ালের ক্যানাইন দাত। এ দাত দুটি লম্বায় প্রায় ৫০ সেন্টিমিটার পর্যন্ত বড় হতে পারে।  দাত দুটি বেশিরভাগ সময় ব্যবহার হয় লড়াই করার জন্য।

জলহস্তী নিরামিষভোজী। এদের খাদ্য তালিকার বড় অংশ জুড়ে থাকে ঘাস, ফলমূল, বাকল ইত্যাদি। এরা প্রতিদিন প্রায় ৪০ কেজি খাবার খায়।

এরা পানির নিচে ঘুমায়, বাচ্চা প্রসব করে এমনকি বাচ্চাকে দুধও পানির নিচে খাওয়ায়।


পানির নিচে কাজ করার জন্য এদের নাক ও কান বিশেষভাবে তৈরী। পানির নিচে থাকার সময় এরা নাক কানের ছিদ্র বন্ধ করতে পারে।

বেশিরভাগ সময় পানিতে থাকলেও এরা ৭ মিনিটের মত পানির নিচে শ্বাস ধরে রাখতে পারে। প্রতি২-৩ মিনিট পর এরা পানির উপরাংশে আসে শ্বাস নেওয়ার জন্য। এই প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ স্বতস্ফূর্ত। পানির নিচে ঘুমিয়ে থাকলেও জলহস্তী প্রতি ৩ মিনিট পরপর উপরে উঠে স্বাস নিয়ে আবার ডুব দেয়।জলহস্তী কিন্তু সাতার কাটতে পারেনা। এরা পানির তলদেশে হেটে ও দৌড়ে বেড়ায়।

মহিলা জলহস্তীকে Cow বলে। এরা প্রতি দুইবছরে একটি করে বাচ্চা দেয়। জন্মের সময় বাচ্চার ওজন প্রায় ৪০ কেজি থাকে। এদের খুব শান্তশিষ্ট বলে মনে হলেও এরা মোটেও শান্ত না। এদের মেজাজ খুবই চড়া। মানুষ দেখলে এরা আক্রমণাত্মক আচরণ করে। প্রতিবছর প্রায় ৩০০০ মানুষ জলহস্তীর আক্রমণে মারা যায়।

জলহস্তী সাধারণত ৪০-৫০ বছর বাচলেও সর্বোচ্চ রেকর্ডকৃত আয়ু ছিলো ডন্না নামক এক জলহস্তীর। সে ৬১ বছর বয়স পর্যন্ত বেচে ছিলো। ২০১২ সালে জলহস্তীটি মারা যায়।

কংগোতে সবচেয়ে বেশী জলহস্তী হত্যা হয়। এদের হত্যার মূল কারণ এদের Canine দাত যা আইভরি হিসেবে কালোবাজারে চড়া দামে বিক্রি হয়।

জলহস্তী বর্তমানে সংখ্যায় দিন দিন কমে যাচ্ছে। আগামী ৩০ বছরে এদের সংখ্যা ৩০% পর্যন্ত হ্রাস পাবে বলে ধারণা করা হয়। তাই আমাদের সকলের দায়িত্ব এদের প্রতি যত্নশীল হওয়া এবং যথাসম্ভব এদের রক্ষণাবেক্ষণ করা।

Basher

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত