x

এইমাত্র

  •  করোনা সঙ্কটে কর্মস্থলে অনুপস্থিত:ফেঁসে যাচ্ছেন ১১ কর্মকর্তা
  •  করোনা: বাংলাদেশে শুধু বয়স্ক নয়, ঝুঁকিতে সব বয়সীরাই
  •  বিএসএমএমইউ’র অধ্যাপক ও মেয়ে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত
  •  লকডাউনের মধ্যে বিয়ে করে বরখাস্ত হলেন সরকারি কর্মকর্তা
  •  মসজিদে পাঁচের অধিক মুসল্লি, লক্ষ্মীপুরে ইমাম আটক

দেশের সকল সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে অভিন্ন ভর্তি পরীক্ষার সিদ্ধান্ত

প্রকাশ : ২৩ জানুয়ারি ২০২০, ১৮:৫৫

সাহস ডেস্ক

দেশের সকল সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষাবর্ষ (২০২০-২০২১) থেকে অভিন্ন ভর্তি পরীক্ষার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এতে মানবিক, ব্যবসায় ও বিজ্ঞান বিভাগ থেকে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা উচ্চ মাধ্যমিকের পাঠ্যসূচির ওপর ভিত্তি করে তৈরি করা প্রশ্নপত্রে সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে একযোগে অনুষ্ঠিত সমন্বিত পদ্ধতিতে ভর্তিপরীক্ষায় অংশ নিতে পারবে।

বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) এক মতবিনিময় সভায় সর্বসম্মতিক্রমে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

বিশ্ববিদ্যালয় মুঞ্জরি কমিশনের (ইউজিসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক কাজী শহীদুল্লাহর সভাপতিত্বে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর উপাচার্যদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় সর্বসম্মতিক্রমে এই সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে কমিশনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

কমিশনের কর্মকর্তারা বলছেন, এখন থেকে সারা দেশে একটাই ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে এবং একজন শিক্ষার্থীকে ভর্তির জন্যে একটাই পরীক্ষাই দিতে হবে। তবে এই পরীক্ষা কে আয়োজন করবে, কিভাবে অনুষ্ঠিত হবে এসব প্রক্রিয়া ও পদ্ধতির বিষয়ে কোন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।

ইউজিসি চেয়ারম্যান বলেন, ভর্তি পরীক্ষা পদ্ধতির বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনার জন্য ১৯৭৩ এর অধ্যাদেশ বলে গঠিত চারটি বিশ্ববিদ্যালয় এবং কিছু নির্বাচিত বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের সঙ্গে শিগগিরই এ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে।

অধ্যাপক শহীদুল্লাহ বলেন, রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী সমন্বিত পদ্ধতিতে ভর্তিপরীক্ষা নেওয়ার জন্য বিভিন্ন সময়ে তাদের প্রত্যাশা ব্যক্ত করেছেন। গতবছর পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর উপাচার্যদের সংগঠন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় পরিষদ সমন্বিত পদ্ধতিতে ভর্তিপরীক্ষা নেওয়ার জন্য সিদ্ধান্ত নেয়। পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যরা দৃঢ়কণ্ঠে সমন্বিত পদ্ধতিতে ভর্তিপরীক্ষা নেওয়ার জন্য তাদের অভিমত পুনর্ব্যক্ত করেন বলে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে।

সারা দেশের ৪৬টি সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার জন্যে বর্তমানে প্রায় আড়াই লক্ষ শিক্ষার্থী বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ঘুরে ঘুরে একাধিক পরীক্ষা দিয়ে থাকেন। বিশ্ববিদ্যালয়ে অভিন্ন ভর্তি পরীক্ষার জন্য শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা দীর্ঘদিন ধরেই দাবি জানিয়ে আসছিলেন।

বর্তমানে এই পরীক্ষা যেভাবে দিতে হয় তাতে তারা নানা ধরনের হয়রানির শিকার হন। খুবই অল্প সময়ের ব্যবধানে তাদেরকে দেশের বিভিন্ন স্থানে গিয়ে পরীক্ষা দিতে হয়। এতে অর্থ ও সময়ের অপচয় হয়।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত