x

এইমাত্র

  •  করোনায় আরও ২৯ জনের মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত ৩২৮৮
  •  ভ্রমণ কড়াকড়ি শিথিল হওয়ার পর ট্রেন এবং বিমানের টিকিট কেনার হিড়িক লেগেছে চীনের রাজধানী বেইজিংয়ে
  •  মহামারি করোনাভাইরাসে বিশ্বব্যাপী মৃত্যু ৫ লাখ ৩০ হাজার, আক্রান্ত ১ কোটি ১২ লাখেরও বেশি
  •  পুলিশে করোনায় আক্রান্ত ১১৪৩১ জন, মৃত্যু ৪৪
  •  গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রকে ডেকেছে ওষুধ প্রশাসন

সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশিদের জমা অর্থের পরিমাণ কিছুটা কমেছে

প্রকাশ : ২৬ জুন ২০২০, ১১:৪২

সাহস ডেস্ক

সুইজারল্যান্ডের বিভিন্ন ব্যাংকে বাংলাদেশিদের জমা অর্থের পরিমাণ কিছুটা কমেছে। ২০১৯ সালে সুইজারল্যান্ডের বিভিন্ন ব্যাংকে বাংলাদেশিদের জমা করা অর্থের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৬০ কোটি ৩০ লাখ ফ্রাঁ। ২০১৮ সাল শেষে যার পরিমাণ ছিল প্রায় ৬২ কোটি সুইস ফ্রাঁ, বাংলাদেশি মুদ্রায় যা ৫ হাজার ৫১৮ কোটি টাকা।

বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) সুইজারল্যান্ডের কেন্দ্রীয় ব্যাংক (এসএনবি) 'ব্যাংকস ইন সুইজারল্যান্ড–২০১৯' শীর্ষক বার্ষিক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

সুইস ন্যাশনাল ব্যাংকের প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৯ সালে সুইজারল্যান্ডের ব্যাংকে বাংলাদেশিদের অর্থের পরিমাণ কিছুটা কমেছে। এক বছরের ব্যবধানে দেশটির বিভিন্ন ব্যাংকে বাংলাদেশিদের অর্থের পরিমাণ প্রায় ১৫১ কোটি টাকা কমে গেছে।

মূলত বাংলাদেশ থেকে নানাভাবে অবৈধ উপায়ে পাচার হওয়া অর্থ যেমন সুইজারল্যান্ডের বিভিন্ন ব্যাংকে জমা হয়, তেমনি বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বসবাসকারী বাংলাদেশি নাগরিকেরাও দেশটিতে অর্থ জমা রাখেন। তাই সুইজারল্যান্ডের ব্যাংকে থাকা বাংলাদেশিদের মোট অর্থের মধ্যে বৈধ–অবৈধ সব অর্থই রয়েছে।

সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশিদের মোট অর্থের পরিমাণ কমলেও দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে এখনও দ্বিতীয় সর্বোচ্চ জমা তাদেরই। প্রথম স্থানে ভারত, এর পরেই রয়েছে পাকিস্তান, নেপাল ও শ্রীলঙ্কা।

বিশ্লেষকরা বলছেন, সুইজারল্যান্ডে অর্থ সংক্রান্ত গোপনীয়তা কিছুটা কমে যাওয়ায় অনেকেই এখন অবৈধ টাকা রাখতে লুক্সেমবার্গ, কেম্যান আইল্যান্ড, ব্রিটিশ ভার্জিন আইল্যান্ড, পানামা কিংবা বারমুডার মতো দেশগুলোর দিকে ঝুঁকছেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত