x

এইমাত্র

  •  ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আরও ৩৩ জনের মৃত্যু
  •  পদত্যাগ করলেন লেবাননের প্রধানমন্ত্রী
  •  নাটক সাজাতে গিয়ে পল্লবী থানায় বোমা বিস্ফোরণ

ঋণের সুদহার হ্রাসের দাবি এফবিসিসিআই

প্রকাশ : ০৯ আগস্ট ২০১৯, ১৭:৩১

রফতানির নির্দিষ্ট লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে ঋণের সুদহার হ্রাসসহ সার্বিক অবকাঠামো ও নীতিসুবিধা নিশ্চিত করার আহ্বান জানিয়েছে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই। গতকাল (৮ আগস্ট) রফতানি লক্ষ্য নিয়ে প্রতিক্রিয়ায় এই আহ্বান জানিয়েছে সংগঠনটি।

সরকার ২০১৯-২০ অর্থবছরের রফতানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে ৫৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার, যা গত অর্থবছরের অর্জনের ওপর ভিত্তি করে ১৫ দশমিক ২০ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে। এফবিসিসিআই বলেছে, বর্তমান বৈশ্বিক বাজার পরিস্থিতি, সরকারের বাণিজ্য সহায়ক নীতি, রফতানিকারকদের সরবরাহ দক্ষতা ও কারখানার নিরাপত্তা পরিবেশ নিশ্চিত করার পরিপ্রেক্ষিতে ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়ী এ লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করা সম্ভব। তবে কাঙ্ক্ষিত রফতানি লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের স্বার্থে উৎপাদন ব্যয় কমানো ও প্রতিযোগিতা সক্ষমতা বাড়াতে রফতানি উন্নয়ন তহবিলসহ (ইডিএফ) অন্যান্য ব্যাংক সুদের হার হ্রাস, বেসরকারি খাতে সহজলভ্য ঋণপ্রবাহ, ব্যাকওয়ার্ড লিংকেজের ক্ষেত্রে সব ধরনের নীতিসহায়তা, চট্টগ্রাম বন্দরসহ সব বন্দর, এয়ারপোর্ট প্যাসেঞ্জার এবং কার্গো অপারেশন ও ব্যবস্থাপনা, মাল্টিমোডাল কানেক্টিভিটি, ট্রেড লজিস্টিকসের ব্যবস্থাপনা ও সেবার সক্ষমতা বৃদ্ধিসহ সর্বোপরি রফতানি নীতিতে উল্লিখিত সুযোগ-সুবিধাগুলো নিশ্চিত করার আহ্বান জানিয়েছে এফবিসিসিআই।

ট্রেড ফ্যাসিলিটেশনের সব সুবিধা ব্যবস্থাপনায় স্বচ্ছ ও নির্ঝঞ্জাট প্রত্যাশা করে এফবিসিসিআই এর দাবি, 'বৈদেশিক বাণিজ্যকে সহায়তার লক্ষ্যে সরকার এরই মধ্যে বাণিজ্য সহায়ক (ট্রেড ফ্যাসিলিটেশন) কার্যক্রম গ্রহণ করেছে। ইজ অব ডুয়িং বিজনেস ও রফতানি উন্নয়নের স্বার্থে এই কার্যক্রম আরো জোরদার করা প্রয়োজন। এই বছর নতুন ১৩টি পণ্য রফতানির বিপরীতে নগদ সহায়তা দেয়ার সিদ্ধান্ত এবং তৈরি পোশাক খাতে ট্রেড ফ্যাসিলিটিজ সুবিধা-পণ্য বহুমুখীকরণ, লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে আরো উচ্চরফতানি অর্জনে সহায়ক হবে।'

এফবিসিসিআই বলছে, পূর্ববর্তী অর্থবছরের তুলনায় ২০১৮-১৯ অর্থবছরে দেশের সার্বিক রফতানি (পণ্য ও সেবা) আয় বেড়েছে ১৪ দশমিক ৩০ শতাংশ এবং শুধু সেবা খাতে রফতানি আয় বেড়েছে ৪৬ দশমিক ৬ শতাংশ, যা আশাব্যঞ্জক। রফতানি প্রবৃদ্ধির এই ধারা অব্যাহত থাকলে এবং সব ধরনের নীতিসহায়তা নিশ্চিত করা হলে ২০২১ সালের মধ্যে রফতানি আয় ৬০ বিলিয়ন ডলারে উন্নীতকরণের কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যমাত্রা অর্জন সম্ভব। দেশের বেসরকারি খাতের শীর্ষ সংগঠন হিসেবে এফবিসিসিআই কাঙ্ক্ষিত রফতানি লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা প্রদানে সবসময়ই সচেষ্ট থাকবে। সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা ও প্রেক্ষিত পরিকল্পনা, রফতানি বৃদ্ধি ও বাজার সম্প্রসারণে সরকারকে যথাযথ সহযোগিতা দিতে এফবিসিসিআই সবসময় প্রস্তুত।

সাহস২৪.কম/জুবায়ের/শামীম

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত