x

এইমাত্র

  •  করোনা প্রমাণ করেছে দুর্যোগ মোকাবিলায় আমরা কতটা শক্তিহীন: প্রধানমন্ত্রী
  •  করোনায় সারা বিশ্বে মৃতের সংখ্যা ৩ লাখ ৯১ হাজার ৯৯৭ জন
  •  করোনায় বিশ্বজুড়ে আক্রান্ত ৬৬ লাখের অধিক, সুস্থ হয়েছেন ৩২ লাখেরও বেশী
  •  ঢামেকের করোনা ইউনিটে ২ দিনে আরও ৩৩ জনের মৃত্যু
  •  করোনাভাইরাসঃ বাংলাদেশে আরও ৩০ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২৮২৮ জনের

ভয়াবহ ঝুঁকিতে দেশের ডিজিটাল ব্যাংকিং

প্রকাশ : ১১ জুন ২০১৯, ১৩:০৩

সাহস ডেস্ক
সংগ্রহীত

দেশের অন্তত দুই হাজার এটিএম বুথ থেকে গ্রাহকদের একাউন্ট তথ্য পাচার হয়ে যেতে পারে শঙ্কা করছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। এটিএম বুথের যন্ত্র সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের যোগসাজশে একটি হ্যাকার গ্রুপ এই তথ্য চুরি করতে পারে বলে মনে করছে ডিবি। এতে হুমকির মুখে পড়তে পারে দেশের ডিজিটাল ব্যাংকিং সিস্টেম।

সম্প্রতি এটিএম বুথ জালিয়াতির সঙ্গে জড়িত কিছু বিদেশী নাগরিককে গ্রেপ্তারের পর এই তথ্যগুলো যাচাই করছে গোয়েন্দারা। তবে গোয়েন্দাদের কাছে এই ধরণের তথ্য এসেছিলো বছর তিনেক আগে ডিবির হাতে গ্রেপ্তার হওয়া অপর এক বিদেশী নাগরিকের কাছ থেকে।

ডিবি সন্দেহ করছে, সাম্প্রতিক সময়ের বিভিন্ন ব্যাংকের টাকা পাচারের সাথে এই তথ্য চুরির ঘটনার সম্পর্ক থাকতে পারে। 

জানা যায়, এটিএম বুথের যন্ত্রগুলো যুক্তরাষ্ট্রের যে প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে আনা হয়েছে তাদের সাথেই আন্তর্জাতিক হ্যাকার গোষ্ঠীর একটি চুক্তির পরিকল্পনা ছিলো। তবে, সেই চুক্তি হয়েছে কিনা বা কতটুকু বাস্তবায়ন হয়েছে তা নিয়ে এখনও কোনো নির্ভরযোগ্য তথ্য পাওয়া যায়নি। তবে তিন বছর আগে গ্রেপ্তার হওয়া ঐ বিদেশীর কাছ থেকে ডিবি জানতে পেরেছে, তখন এমন একটি চুক্তির পরিকল্পনা করেছিল আন্তর্জাতিক হ্যাকার গ্রুপের সদস্যরা। চুক্তি অনুযায়ী এটিএম বুথগুলোতে অবৈধ চিপ বসিয়ে দিবে ওই প্রতিষ্ঠানটি। চিপ থাকার ফলে সেসব বুথে যেই কার্ড ঢুকানো হবে, সেই কার্ডের তথ্য সরাসরি চলে যাবে হ্যাকার গ্রুপের সদস্যদের হাতে।

তবে গোয়েন্দাদের ধারণা, সাম্প্রতিক সময়ের হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার ঘটনাগুলো এই পরিকল্পনার অংশ হতে পারে। আর এতে আরোও ভয়াবহ নিরাপত্তাহীনতায় ভুগবে দেশের ডিজিটাল ব্যাংকিং সেবা। তবে, দুই হাজার এটিএম বুথ থেকে তথ্য পাচার হয়েছে কিনা তা নিশ্চিত নয়।

সাহস২৪.কম/জয় 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত