ঠাকুরগাঁওয়ে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর ভিডিও ধারণ, গ্রেপ্তার দুই

প্রকাশ : ২৩ মে ২০২২, ১৮:৫৮

সাহস ডেস্ক

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলায় অষ্টম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে (১৩) তুলে নিয়ে ধর্ষণ ও ভিডিও ধারণের অভিযোগে দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। রবিবার (২২ মে) ভোর রাতে সদর উপজেলার ফুটানিবাজার এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

এর আগে শনিবার বিকালে ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে সদর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ৬ জনের নাম উল্লেখ করে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় দুলাল (৩০), সাজু  (৩২), মোহাম্মদ দুলাল (৩৫), আলমগীর হোসেন (৪০), হাফিজুর ইসলাম (৪৫) ও মো. খগেনকে (৫০) আসামি করা হয়। গ্রেপ্তাকৃতরা হলেন-  ওই এলাকার সোলেমান আলীর ছেলে মো. দুলাল (৩০) এবং চুনিহারি এলাকার সাজু (৩২)। স্কুলছাত্রীর স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জানা যায়, স্কুল ও প্রাইভেটে যাওয়ার সময় প্রায়ই ওই ভুক্তভোগী ছাত্রীকে প্রেম নিবেদন সহ নানা রকম কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিল দুলাল। গত ১৬ মে স্কুল থেকে ফেরার পথে দুলাল ও অটোচালক সাজু ওই ছাত্রীর পথরোধ করে জোরপূর্বক অটোরিকশাযোগে স্থানীয় ট্রাক-ট্যাংকলরী অফিস কক্ষে নিয়ে যায়। পরে দুলাল স্কুল ছাত্রীটিকে ঘরের ভেতরে ধর্ষণ করে। ধর্ষণের ভিডিও গোপনে মোবাইল ফোনে ধারণ করে রাখে। পরে অন্যান্য অভিযুক্তরা এসে স্কুলছাত্রীটিকে মোবাইলে ধারণকৃত ভিডিও দেখিয়ে বলে এ ঘটনা কাউকে জানালে তা ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়া হবে। ছাত্রী বাড়িতে এসে পরিবারকে বিষয়টি জানায়। এ ঘটনায় হাফিজুর ও মো. খগেন বিষয়টি ধামাচাপা দিতে মীমাংসার চেষ্টা চালায় এবং আলামত নষ্টেরও চেষ্টা করে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর বাবা থানায় মামলা করলে রবিবার (২২ মে) পুলিশ অভিযান চালিয়ে দুজনকে গ্রেপ্তার করে।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তানভীরুল ইসলাম বলেন, ভিডিওটি এখনও উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। গ্রেপ্তার দুজনকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

সাহস২৪.কম/এএম/এসটি/এসকে.

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
নির্বাচন কমিশনের ওপর মানুষের আস্থা এখন শূন্যের কোঠায় পৌঁছেছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের। আপনিও কি তাই মনে করেন?