বিয়ে নিয়ে তুঘলকি কাণ্ড

প্রকাশ : ২২ মে ২০২২, ১৬:৩০

সাহস ডেস্ক

কুষ্টিয়ার খোকসায় বিয়ের দাওয়াত না দেওয়ায় হামলার ঘটনা ঘটেছে। উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সেলিম রেজার মধ্যস্থতায় সমাধান হলেও শনিবার (২১ মে) বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে দ্বিতীয় দফায় হামলা হয়েছে বলে জানা গেছে। এতে বরের বড়ভাই ইব্রাহীম আলী (৩২) আহত হয়েছেন।

আহত ইব্রাহীম আলী বলেন, রোজার ঈদের একদিন পর তার ছোট ভাই সম্রাটের বিয়ে হয়। এ উপলক্ষে বাড়িতে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে স্থানীয় কয়েকজনকে দাওয়াত না দেয়ায় তারা ক্ষুদ্ধ হয়ে দ্বিতীয় দফায় শনিবার (২১ মে) হামলা চালায়। প্রথম দফায় হামলার ঘটনায় ইব্রাহীম খোকসা থানায় একটি জিডি করেন। এ কারণে তারা দ্বিতীয় বার হামলা করে।

শোমসপুর ইউনিয়ন পরিষদের স্থানীয় সদস্য (মেম্বার) মাহাতাব উদ্দিন বলেন, ইব্রাহীমের ছোট ভাই সম্রাটের বয়স সর্বোচ্চ ১৩ বছর হবে। তার সঙ্গে ৫ম শ্রেণির  এক ছাত্রীর বিয়ে দেয়া হয়। এ নিয়ে কথা কাটাকাটির জের ধরে ইব্রাহীমের লোকজন প্রতিপক্ষের ওপর হামলা ও মারধর করে। এ ঘটনার পর প্রায় দিন দশেক ইব্রাহীমেরা আত্মগোপনে ছিল। উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যানের মধ্যস্থতায় তারা গ্রামে ফিরে আসে। এরপর প্রতিপক্ষের লোকেরা হামলা করেছে বলে শুনেছি।

এ বিষয়ে শোমসপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ বদর উদ্দিন খানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, এই বিয়ে বা হামলার বিষয়ে তিনি কিছু জানেননা। যেহেতু ঘটনার মধ্যস্থতাকারী উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সেলিম রেজা সেহেতু সেলিম রেজার সাথে যোগাযোগ করতে বলে মুঠোফোনের লাইন কেটে দেন তিনি। উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সেলিম রেজার সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করে তাকে পাওয়া যায়নি।

সাহস২৪.কম/এএম/এসকে.

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
নির্বাচন কমিশনের ওপর মানুষের আস্থা এখন শূন্যের কোঠায় পৌঁছেছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের। আপনিও কি তাই মনে করেন?