রাস্তার ইট উঠে চরম ভোগান্তিতে খুলনার ১০ গ্রামের মানুষ

প্রকাশ : ১৫ মে ২০২২, ২১:৪০

শেখ নাদীর শাহ্, খুলনা

দীর্ঘ দিন সংস্কারের অভাবে খুলনার পাইকগাছার সোলাদানা ইউনিয়নের পশ্চিম কাইনমুখি থেকে খাটুয়ামারী পর্যন্ত প্রায় পাঁচ কিলোমিটার রাস্তার ইট উঠে গেছে। তদারকি না থাকায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে রয়েছে উঠে যাওয়া ইটগুলি। এমন অবস্থায় চলাচলের প্রায় অনুপযোগী হয়ে পড়ায় চরম ভোগান্তিতে রয়েছেন সেখানকার ১০টি গ্রামের অন্তত অর্ধলক্ষাধিক মানুষ। রাস্তাটির জরুরী সংষ্কারে স্থানীয়রা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

উপজেলার পশ্চিম কাইনমুখি গ্রামের গোপাল চন্দ্র মণ্ডল বলেন, রাস্তাটি দিয়ে খাটুয়ামারী, সোনা খালি, আমুরকাটা, মিনহাজ, বাঁশখালী, হোগলার চক, কানাখালী, ভড়েঙ্গার চকসহ ১০ গ্রামের অন্তত অর্ধ লক্ষাধিক মানুষ যাতায়াত করেন। সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান এনামুল হক রাস্তার সামান্য অংশ সংষ্কার করলেও গত প্রায় ১০ বছর ধরে রাস্তাটি অবহেলিত হয়েই পড়ে রয়েছে। আমুর কাঁটার বিধান চন্দ্র মণ্ডল বলেন, এ রাস্তা দিয়ে আবু হোসেন কলেজ, আমুর কাঁটা রংধনু মাধ্যমিক বিদ্যালয়, দক্ষিণ কাইনমুখি আদর্শ বালিকা বিদ্যালয়, আমুর কাঁটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, দক্ষিণ আমুর কাঁটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, খাটুয়ামারী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ ৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কোমলমতি শিক্ষার্থীদের পায়ে হেঁটে বিদ্যালয়ে যাতায়াত করতে হয়।

একই সড়কে রয়েছে সরকারি কমিউনিটি ক্লিনিক ও আমুর কাঁটা বাজার। বিস্তীর্ণ এলাকার সাধারণ মানুষের দৈনন্দিন নানা চাহিদা পূরনে প্রতিদিন আমুরকাটা বাজারে যেতে হয়। বাজারের ব্যবসায়ী ঠাকুর দাশ ও নকুল ম-ল বলেন, রাস্তার নাজুক পরিস্থিতিতে পার্শ্ববর্তী এলাকার মানুষ ১০ কি:মি: ঘুরে অন্য বাজারে গেলেও আমুরকাটায় আসতে চায়না। চাহিদা অনুযায়ী দোকানের প্রয়োজনীয় মালামাল পরিবহনে অতিরিক্ত টাকা খরচ করে ভ্যান ঠেলে গন্তব্যে পৌছাতে হয়। এক্ষেত্রে খরচ অনুযায়ী পণ্যের দাম বেশি হওয়ায় ক্রেতা সাধারণের কাছে কিছুটা বেশি দাম চাইলেও তারা মালামাল না কিনে অন্য বাজারে চলে যাচ্ছে। একটি মাত্র রাস্তার জন্য বাজারব্যবস্থাপনা থেকে শুরু করে সার্বিক ব্যবস্থাপনায় নেতিবাচক প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। দক্ষিণ কাইনমুঁখি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কংকন চন্দ্র ম-ল বলেন, এলাকাটি বরাবরই অবহেলিত। বিশেষ করে গত ১০ বছর ধরে রাস্তাটি চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়লেও কেউ তাদেও খোঁজ নেননা বলেও অভিযোগ তার।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
নির্বাচন কমিশনের ওপর মানুষের আস্থা এখন শূন্যের কোঠায় পৌঁছেছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের। আপনিও কি তাই মনে করেন?