সড়কে মৃত্যু আরও ৮ জনের, আহত ১৬

প্রকাশ : ১৫ মে ২০২২, ২১:২৯

সাহস ডেস্ক

রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে ঘটে যাওয়া সড়ক দুর্ঘটনায় নারী ও শিশুসহ প্রাণ হারিয়েছেন ৮ জন। এসব দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত ১৬ জন। একদিন না যেতেই দেশে ফের ত্রিমুখী সংঘর্ষের দুর্ঘটনা। রাজশাহীর পবায় ঘটে যাওয়া এ দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান মা-মেয়েসহ তিনজন।

রবিবার (১৫ মে) সারাদেশে প্রতিনিধিদের রিপোর্টে প্রাপ্ত সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, শনিবার (১৪ মে) সন্ধ্যা থেকে রবিবার (১৫ মে) সন্ধ্যা পর্যন্ত রাজশাহী ছাড়াও রাজধানী ঢাকা, টাঙ্গাইল, নড়াইল, মাগুরা ও ভোলায় একজন করে আরও ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।  বিশেষজ্ঞ ও প্রতক্ষ্যদর্শীদের মতে, অতিরিক্ত গতি ও অসাবধানতার কারণেই এসব দুর্ঘটনা ঘটে চলেছে।

রাজশাহী: রাজশাহীর পবায় দুই মোটরসাইকেলের সাথে ট্রাক্টরের ত্রিমুখী সংঘর্ষের ঘটনায় মা-মেয়েসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। রবিবার (১৫ মে) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে রাজশাহী-নওগাঁ মহাসড়কের আমান কোল্ড স্টোরের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতদের মধ্যে একজন হলেন আব্দুল মান্নান (৪৮)। তিনি নওগাঁর মান্দা উপজেলার বাসিন্দা। ঘটনাস্থলেই তিনি প্রাণ হারান। ঘটনাস্থলে মারা গেছে আরেক শিশুকন্যা। এছাড়া রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে নেওয়ার পর মৃত ঘোষণা করা হয়েছে ওই শিশুর মাকে। হাসপাতালের ৮ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি রয়েছেন শিশুটির বাবা।

ঢাকা: রাজধানীর তুরাগ থানার কামারপাড়া এলাকায় ট্রাকের ধাক্কায় আম্বিয়া বেগম (৪৮) নামে এক নারী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় তার ছেলে মহিউদ্দিন (১৮) আহত হয়েছেন। রবিবার (১৫মে) সকাল ৯টার দিকে গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেওয়া হলে আম্বিয়া বেগমকে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। নিহতের ছেলে মহিউদ্দিন জানান, সকালে কামারপাড়া থেকে গ্রামের বাড়ি কুমিল্লা যাওয়ার জন্য মাসহ চারজন মিলে রাস্তা দিয়ে হেটে তুরাগ বাসস্ট্যান্ডে যাচ্ছিলাম। পরে কামারপাড়া বাস স্ট্যান্ডের সামনের রাস্তায় এলে পেছন থেকে একটি ট্রাক মা ও ভাইকে ধাক্কা দিলে তারা রাস্তায় ছিটকে পড়ে গুরুতর আহত হয়। পরে তাদের ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে আসলে মাকে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। ছোট ভাই মহিউদ্দিন ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন আছেন।

টাঙ্গাইল: টাঙ্গাইলের গোপালপুরে অরক্ষিত রেলক্রসিংয়ে ট্রেনের ধাক্কায় অটোরিকশাতে থাকা খালেক (৫০) নামের এক যাত্রী নিহত হয়েছেন। এতে অটোরিকশার চালক নাজমুল ও যাত্রী নান্নু মাস্টার নামের দুইজন গুরুত্বর আহত হয়েছেন। আহত দুইজনের বাড়ি ভোলারপাড়া গ্রামে। শনিবার (১৪ মে) সন্ধ্যায় উপজেলার হেমনগর রেল স্টেশনের কাছে ভোলারপাড়া গ্রামে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতের বাড়ি উপজেলা লুটুরচর গ্রামে। তিনি কোহিনুর কেমিক্যাল কোম্পানিতে চাকরি করতেন। আহত দুজনকে উদ্ধার করে গোপালপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে জেলার ঘাটাইলে পৃথক দুর্ঘটনায় পিকআপ ভ্যানের ধাক্কায় বাদল মিয়া নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। রবিবার (১৫ মে) ভোরে টাঙ্গাইল-ময়মনসিংহ আঞ্চলিক সড়কের উপজেলার বানিয়াপাড়া নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে। পুলিশ জানায়,ভোরে ফজর নামাজ শেষে মসজিদ থেকে বের হয়ে রাস্তার পাশ ধরে হাঁটছিলেন বাদল। এ সময় একটি দ্রুতগামী পিকআপভ্যান তাকে চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। পরে স্বজনরা মরদেহ বাড়িতে নিয়ে যায়। বাদল মিয়া বানিয়াবাড়ি গ্রামের নওজেশ মিয়ার ছেলে।

ভোলা: ভোলার চরফ্যাশন উপজেলায় ট্রাকের ধাক্কায় মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে নাহার বেগম (৫০) নামে এক নারী নিহত হয়েছেন।
এ ঘটনায় আহত হয়েছে এক শিশু। শনিবার (১৪ মে) রাত সাড়ে ৯টার দিকে ভোলা-চরফ্যাশন সড়কের ব্রাদার্স ফিলিং স্টেশন এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত নাহার বেগম (৫০) উপজেলার জাহানপুর এলাকার জাকির হোসেনের স্ত্রী। এ ঘটনায় আহত তার মেয়ে নিলাকে (১০) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। জানা গেছে, জাকির হোসেন তার স্ত্রী ও সন্তানকে নিয়ে জাহারপুর থেকে মোটরসাইকেলে করে ভোলার দিকে আসছিলেন। পথে ভোলা-চরফ্যাশন সড়কের ব্রাদার্স ফিলিং স্টেশন এলাকায় পেছন থেকে আসা একটি ট্রাক তাদের মোটরসাইকেলে ধাক্কা দেয়। এতে নাহার বেগম মোটরসাইকেল থেকে রাস্তায় পড়ে গিয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান। খবর পেয়ে পুলিশ ঘাতক ট্রাকটি আটক করেছে।

নড়াইল: জেলা সদরের ধোপাখোলা মোড়ে ব্যাটারিচালিত ভ্যানে দ্রুতগতির মোটরসাইকেলের ধাক্কায় শান্ত মন্ডল (২০) নামে এক কলেজছাত্র নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় শিশুসহ আহত হয়েছেন ভ্যানের চার যাত্রী। রবিবার (১৫ মে) বেলা ১১টার দিকে নড়াইল-ফুলতলা সড়কের ধোপাখোলা মোড়ে দুর্ঘটনাটি ঘটে। নিহত শান্ত পৌরসভার উজিরপুর গ্রামের রাজা মন্ডলের ছেলে। গোবরা মিত্র কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র ছিলেন শান্ত। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সকালে ফুয়েল স্টেশন থেকে মোটরসাইকেলে পেট্রোল নিতে গিয়েছিলেন শান্ত। সেখান থেকে দ্রুত গতিতে বাড়ি ফেরার সময় ধোপাখোলার মোড়ে আসলে সামনে থাকা একটি ব্যাটারিচালিত ভ্যানে ধাক্কা লাগে তার মোটরসাইকেলে। শান্ত নিজ মোটরসাইকেলের নিচে চাপা পড়েন। ভ্যানের যাত্রীরা রাস্তায় ছিটকে পড়ে আহত হন। ঘটনাস্থল থেকে তাদের উদ্ধার করে নড়াইল সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে শান্তর মৃত্যু হয়।

মাগুরা: মাগুরায় যাত্রীবাহী বাস ও ট্রাকের সংঘর্ষে মো. আবু হানিফ (৬০) নামে অবসরপ্রাপ্ত এক সেনাসদস্য নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন অন্তত ছয় জন।

রবিবার (১৫ মে) সকালে মাগুরা-যশোর সড়কের শেখপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত আবু হানিফ যশোর জেলার পৌর এলাকার মোহাম্মদ আবদুল গনির ছেলে।

জানা গেছে, ভোর সাড়ে ৫টার দিকে ঢাকা থেকে যশোরগামী একটি যাত্রীবাহী পরিবহনের সঙ্গে মাগুরা মুখী একটি ট্রাকের সংঘর্ষ হয়। এ সময় ঘটনাস্থলেই ওই সেনা সদস্য নিহত হন। এছাড়া ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয়দের সহায়তায় আহতদের উদ্ধার করে মাগুরা ২৫০ শয্যা সদর হাসপাতাল নেওয়া হয়।

সাহস২৪.কম/এআর/এসটি/এসকে.

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
নির্বাচন কমিশনের ওপর মানুষের আস্থা এখন শূন্যের কোঠায় পৌঁছেছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের। আপনিও কি তাই মনে করেন?