ঢাকায় পুলিশের ওপর হামলা, দুই মামলায় আসামি চার হাজার

প্রকাশ : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১৩:৫১

সাহস ডেস্ক

কুমিল্লায় কথিত কোরান অবমাননার জেরে রাজধানীর বায়তুল মোকাররম মসজিদ ও এর আশপাশের এলাকায় শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) জুমার নামাজের পর পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে রমনা ও পল্টন থানায় দুটি মামলা দায়ের করেছে। মামলায় খেলাফত আন্দোলনের নেতাসহ অজ্ঞাত চার হাজার মানুষকে আসামি করা হয়েছে।

শনিবার (১৬ অক্টোবর) গভীর রাতে হওয়া দুই মামলার মধ্যে পল্টন থানার মামলায় খেলাফত আন্দোলনের আমির জাফরুল্লাহ খানসহ ১১ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত দুই থেকে আড়াই হাজার মানুষকে আসামি করা হয়েছে। আর রমনা থানার মামলায় ১০ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত প্রায় দেড় হাজার জনকে আসামি করা হয়েছে। দুই থানায় এ পর্যন্ত মোট ২১ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

মামলার এজাহারে ‘কুমিল্লার ঘটনার জেরে পল্টন থানা এলাকায় নাশকতা, ভাঙচুর, রাষ্ট্রীয় সম্পদ বিনষ্ট, সরকারি কাজে বাধা ও পুলিশের ওপর হামলার’ কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

রমনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলাম ও পল্টন থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) জাহাঙ্গীর পৃথকভাবে মামলা দুটির কথা নিশ্চিত করেছেন।

পল্টন থানার ওসি সালাউদ্দিন মিয়া জানিয়েছেন, যে ১১ জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে, তাদের মধ্যে ছয়জনকে শুক্রবার দুপুরে জুমার নামাজের পর সংঘর্ষের সময় গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। আমির জাফরুল্লাহসহ আরও পাঁচজন পলাতক রয়েছেন।

এর আগে, শুক্রবার জুমার নামাজের পর বায়তুল মোকাররম থেকে কয়েকশ মুসল্লি মিছিল নিয়ে কাকরাইলের নাইটিংগেল মোড়ের দিকে গেলে পুলিশের বাধার মুখে পড়ে। এ সময় পুলিশের সঙ্গে তাদের সংঘর্ষ শুরু হয়। বিক্ষোভকারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছোড়েন। পরে পুলিশ টিয়ার শেল ছুড়ে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এ ঘটনায় পাঁচ পুলিশসহ নয়জন আহত হন।

রমনার ওসি মনিরুল বলেন, নাইটিংগেল ও কাকরাইল মোড়ে নাশকতার ঘটনায় ঘটনাস্থল থেকে ১০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। এই ১০ জনের নাম উল্লেখসহ রমনা থানায় মোট দেড় হাজার অজ্ঞাত আসামির বিরুদ্ধে মামলা দেওয়া হয়েছে।

সাহস২৪.কম/এমআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
নির্বাচন কমিশনের ওপর মানুষের আস্থা এখন শূন্যের কোঠায় পৌঁছেছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের। আপনিও কি তাই মনে করেন?