রামগতিতে কিশোরীকে ধর্ষণ, যুবলীগ নেতা আব্দুল কুদ্দুচ আটক

প্রকাশ : ০১ জুলাই ২০২১, ১৫:১৬

লক্ষ্মীপুরের রামগতি উপজেলায় মোবাইলে প্রেমের ফাঁদে ফেলে এক কিশোরীকে (১৬) ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে আব্দুল কুদ্দুচ (২৭) নামে যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে। বুধবার (৩০ জুন) রাতে ধর্ষণের অভিযোগে ওই যুবলীগ নেতাকে আটক করেছে পুলিশ।

আটক আব্দুল কুদ্দুচ উপজেলার বড়খেরী ইউনিয়নের দুদু মিয়া হাজী বাড়ির কামাল উদ্দিনের ছেলে ও বড়খেরী ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা।

ঘটনাটি ঘটেছে গত ২৭ জুন দিনের বেলায় উপজেলার চৌমুহনি বাজার এলাকায় আলতাফ হোসেনর পরিত্যক্ত বাড়িতে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, রামগতি উপজেলায় আব্দুল কুদ্দুচের সাথে জনৈক কিশোরীর কয়েক মাসের প্রেমের সর্ম্পক গড়ে উঠে। বিয়ের ফাঁদে ফেলে ওই কিশোরীকে লম্পট কুদ্দুচ কয়েকবার ধর্ষণ করে। একই কায়দায় ওই কিশোরীকে আবারো ধর্ষণ করতে গেলে স্থানীয়রা হাতেনাতে ধরে ফেলে। পরে, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনা স্থল থেকে আব্দুল কুদ্দুচকে আটক করে, এবং কিশোরীকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। ধর্ষণ মামলার অভিযুক্ত আসামী আব্দুল কুদ্দুচকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

কিশোরীর দুলাভাই আলাউদ্দিন জানান, আব্দুল কুদ্দুচ এলাকার মেয়েদের বিয়ের ফাঁদে ফেলে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে। এরপর বিভিন্ন সময় তাদের আপত্তিকর ছবি তুলে হুমকির মুখে রাখে। যুবলীগের ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে কিশোরী ও বিভিন্ন বয়সী নারীদের ধর্ষণ করে।

রামগতি থানার পুলিশের পরিদর্শক (ওসি) মোহাম্মদ সোলাইমান বলেন, বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে লম্পট কুদ্দুচ ওই কিশোরীকে তিনবার ধর্ষণ করেছে। মেয়ের দুলাভাই বাদী হয়ে কুদ্দুচের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা করেছে। ভিকটিম কিশোরীকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
নির্বাচন কমিশনের ওপর মানুষের আস্থা এখন শূন্যের কোঠায় পৌঁছেছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের। আপনিও কি তাই মনে করেন?