x

এইমাত্র

  •  গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় নতুন সংক্রমিত ২৬১১ জন, মৃত ৩২ জন
  •  মহামারি করোনাভাইরাসে বিশ্বব্যাপী মৃত্যু ৭ লাখ ২৪ হাজার, আক্রান্ত ১ কোটি ৯৫ লাখেরও বেশি

সাংবাদিকের পরিবারের ওপর হামলা চালানো ইউপি চেয়ারম্যানের জামিন

প্রকাশ : ০৬ জুলাই ২০২০, ১১:৫১

সাহস ডেস্ক

দুর্নীতি ও নানা অনিয়ম নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করায় কুমিল্লার মুরাদনগর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক শরিফুল আলম চৌধুরীর বাড়িতে ঢুকে পরিবারের সদস্যদের ওপর হামলা চালানোর ঘটনায় গ্রেপ্তার দারোরা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান জামিন পেয়েছেন। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন কুমিল্লা কোর্ট ইন্সপেক্টর সালাউদ্দিন আল মাহমুদ।

রবিবার (৫ জুলাই) ভার্চুয়াল আদালতে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক গোলাম মাহবুব খান ইউপি চেয়ারম্যান শাহজাহানের জামিন আবেদন মঞ্জুর করেন।

মুরাদনগর থানার পরিদর্শক (ইনস্পেক্টর, তদন্ত) মো. নাহিদ বলেন, রবিবার আদালতে হাজির করার পর জামিন আবেদন করেন ইউপি চেয়ারম্যান শাহজাহান। আদালত তার জামিন আবেদন মঞ্জুর করেন। এই মামলার বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

জানা গেছে, চেয়ারম্যান শাহজাহান বাহিনীর লোকজন নিয়ে দারোরা ইউনিয়নে কাজিয়াতল গ্রামে শনিবার প্রকাশ্য দিবালকে বাড়িতে গিয়ে সাংবাদিককে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম করে। তার মুক্তিযোদ্ধা বাবা ও বৃদ্ধ মাকে কুপিয়েও আহত করা হয়। এ ঘটনায় চেয়ারম্যানসহ সাত জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন সাংবাদিক শরিফুলের বাবা।    

সাংবাদিক শরিফুলের বাবা মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মতিন চৌধুরী বলেন, দারোরা ইউপি চেয়ারম্যান শাহজাহানের বিরুদ্ধে দুর্নীতি, অনিয়ম ও স্বজনপ্রীতির সংবাদ প্রকাশ করে আমার ছেলে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে তিনি আমার ছেলেকে প্রাণনাশের হুমকি দেন। শরিফের বিরুদ্ধে একাধিক মিথ্যা মামলা দেওয়া হয়।

“নিরাপত্তার কথা ভেবে সে একমাস বাড়ির বাইরে ছিলো। গত সপ্তাহে সে বাড়িতে আসে। শরিফ বাড়িতে আছে এ খবর পেয়ে শাহজাহানের লোকজন বাড়িতে ঢুকে তাকে বাড়ির উঠানে টেনে নিয়ে দা দিয়ে কুপিয়ে, হাতুড়ি ও লোহার পাইপ দিয়ে পিটিয়ে তার দুই হাত-পা ভেঙে দেয়। আমি ও তার মা তাকে বাঁচাতে এগিয়ে গেলে আমাদেরকেও কুপিয়ে-পিটিয়ে আহত করে সন্ত্রাসীরা। তাদের মারধরে আমার স্ত্রীর বাম হাত ভেঙে গেছে। আমরা চিৎকার করলেও চেয়ারম্যানের লোকজনের ভয়ে কেউ এগিয়ে আসার সাহস পায়নি। শরিফুলকে মুরাদনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে অবস্থা আশংকাজনক দেখে কর্তব্যরত চিকিৎসক কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছেন। আমরা মুরাদনগর হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছি।”

সাংবাদিক শরিফুলের বোন সুলতানা চৌধুরী মুন্নী বলেন, আমাকে ঘরে পেয়ে সন্ত্রাসীরা শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করে। আমি তাদের হাতে কামড় দিয়ে ছুটে গিয়ে প্রতিবেশিদের বাড়িতে গিয়ে ইজ্জত রক্ষা করি।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত