x

এইমাত্র

  •  করোনায় আরও ২৯ জনের মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত ৩২৮৮
  •  ভ্রমণ কড়াকড়ি শিথিল হওয়ার পর ট্রেন এবং বিমানের টিকিট কেনার হিড়িক লেগেছে চীনের রাজধানী বেইজিংয়ে
  •  মহামারি করোনাভাইরাসে বিশ্বব্যাপী মৃত্যু ৫ লাখ ৩০ হাজার, আক্রান্ত ১ কোটি ১২ লাখেরও বেশি
  •  পুলিশে করোনায় আক্রান্ত ১১৪৩১ জন, মৃত্যু ৪৪
  •  গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রকে ডেকেছে ওষুধ প্রশাসন

সিসিটিভি ফুটেজে ধরা পড়লো বুড়িগঙ্গায় লঞ্চ দুর্ঘটনার চিত্র

প্রকাশ : ২৯ জুন ২০২০, ২২:২৮

সাহস ডেস্ক

ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ফরাশগঞ্জ এলাকায় একটি যাত্রীবাহী লঞ্চডুবির ঘটনার সময়ের একটি ভিডিও ঘাট সংলগ্ন একটি সিসিটিভি ফুটেজে ধরা পড়েছে। সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, এম এল মর্নিং বার্ড নামের ওই লঞ্চটিকে পেছন থেকে আরেকটি লঞ্চ ধাক্কা দেয়। এতে মুহুর্তের মধ্যেই লঞ্চটি পানিতে তলিয়ে যায়।

সোমবার (২৯ জুন) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বুড়িগঙ্গার শ্যামবাজার এলাকায় লঞ্চডুবির ঘটনা ঘটে।

ফায়ার সার্ভিস কন্ট্রোল রুমের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এনায়েতুর রহমান বলেন, এখন পর্যন্ত ৩২টি মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। মৃত ৩২ জনের মধ্যে ২১ জন পুরুষ, আটজন নারী এবং তিনজন শিশু। ডুবে যাওয়া লঞ্চটিতে আনুমানিক ৫০-৬০ জন যাত্রী ছিল

ফায়ার সার্ভিস সদর দপ্তরের ডিউটি অফিসার রোজিনা আখতার জানান, কোস্টগার্ড, বিআইডাব্লিউটিএ, ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল ও নৌবাহিনীর ডুবুরি দল যৌথভাবে উদ্ধার অভিযান চালাচ্ছে। এখন পর্যন্ত ৩২ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তবে, নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশংকা করছেন উদ্ধারকর্মীরা।

দমকল বাহিনী এবং পুলিশের সঙ্গে কথা বলে জানা যাচ্ছে, সকাল সাড়ে সাতটার দিকে মুন্সিগঞ্জের কাঠপট্টি থেকে 'মর্নিং বার্ড' নামে ডুবে যাওয়া লঞ্চটি ছেড়ে আসে। এরপর সদরঘাটে এসে ঘাটে পৌছানোর কয়েক মূহুর্ত আগে চাঁদপুরগামী ময়ূর-২ নামে একটি বড় লঞ্চের ধাক্কায় এই দুঘর্টনা ঘটে। 

ঘটনাস্থলের কাছের একটি সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, 'মর্নিং বার্ড' নামে আকারে ছোট লঞ্চটিকে পেছন থেকে বড় সাদা একটি লঞ্চ ধাক্কা দিয়ে সামনে ঠেলে নিচ্ছে। কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে ছোট লঞ্চটি পুরোপুরি উল্টে বড় লঞ্চটির নিচে তলিয়ে যাচ্ছে। বড় লঞ্চটির নাম ময়ূর-২। ডুবে যাওয়া মর্নিং বার্ড ঢাকা থেকে মুন্সীগঞ্জ রুটে চলাচল করে।

মূলত সদরঘাট, সোয়ারীঘাট এবং মিটফোর্ড এলাকায় ব্যবসাবাণিজ্য করেন, এবং মুন্সীগঞ্জ থেকে সকালে ঢাকায় এসে বিকেল-সন্ধ্যায় ফিরে যান এমন মানুষেরা নিয়মিত এই রুটে যাতায়াত করেন।

সদরঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম ভূঁইয়া বলেন, মুন্সীগঞ্জের কাঠপট্টি এলাকা থেকে ৬০-৭০ জন যাত্রী নিয়ে মর্নিং বার্ড নামের ওই লঞ্চটি ঢাকায় ফিরছিল। এ সময় ময়ূর-২ নামের একটি লঞ্চ মর্নিং বার্ডকে ধাক্কা দিলে সেটি ডুবে যায়।

এদিকে নিহত ৩২ জনের মৃতদেহ রাজধানীর মিটফোর্ড হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। উদ্ধার অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে কোস্টগার্ড। ময়ূর-২ লঞ্চটি জব্দ করা হয়েছে। তবে, লঞ্চের মাস্টার পালিয়েছেন।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌযান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বিআইডাব্লিউটিএ)  এ কে এম আরিফ উদ্দিন বলেন, নদীর তলদেশে এম এল মর্নিং বার্ড নামের লঞ্চটিকে শনাক্ত করা হয়েছে। লঞ্চটি উদ্ধার করতে নারায়ণগঞ্জ থেকে প্রত্যয় নামের একটি জাহাজ রওনা দিয়েছে।

তিনি আরও জানান, এই ঘটনায় বিআইডাব্লিউটিএ-এর যুগ্ম পরিচালক জয়নাল আবেদীনকে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত