x

এইমাত্র

  •  করোনা প্রমাণ করেছে দুর্যোগ মোকাবিলায় আমরা কতটা শক্তিহীন: প্রধানমন্ত্রী
  •  করোনায় সারা বিশ্বে মৃতের সংখ্যা ৩ লাখ ৯১ হাজার ৯৯৭ জন
  •  করোনায় বিশ্বজুড়ে আক্রান্ত ৬৬ লাখের অধিক, সুস্থ হয়েছেন ৩২ লাখেরও বেশী
  •  ঢামেকের করোনা ইউনিটে ২ দিনে আরও ৩৩ জনের মৃত্যু
  •  করোনাভাইরাসঃ বাংলাদেশে আরও ৩৫ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২৪২৩ জনের

গণমাধ্যমে সরকারি হাসপাতালের কর্মকর্তা ও কর্মচারিদের কথা বলায় নিষেধাজ্ঞা

প্রকাশ : ১৮ এপ্রিল ২০২০, ০৪:১৭

সাহস ডেস্ক

অনুমতি ছাড়া সরকারি হাসপাতালের কর্মকর্তা ও কর্মচারিদের প্রকাশ্য আলোচনা, বিবৃতি প্রদান, সংবাদপত্র বা অন্যান্য গণমাধ্যমের মতামত না দেওয়ার জন্য নির্দেশ দিয়েছে নার্সিং অ্যান্ড মিডওয়াইফারি অধিদফতরের জেনারেল (ডিজিএনএম)।

বুধবার (১৫ এপ্রিল) ডিজিএনএমের মহাপরিচালক সিদ্দিকা আক্তার এই আদেশ জারি করেন।

আদেশটি এমন সময়ে জারি করা হয়েছে যখন সারাদেশের অনেক নার্স করোনাভাইরাসে (কোভিড -১৯) আক্রান্ত রোগীদের সেবার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম (পিপিই) পাননি। যেটা না পেলে তাদেরও সংক্রমিত হওয়ার ঝুঁকি রয়েছে।

বাংলাদেশ বেসিক গ্রাজুয়েট নার্সেস সোসাইটির সভাপতি নাসিমুল হক ইমরান বলেন, হয়তো গুজব রোধের লক্ষ্যেই অধিদপ্তর এই উদ্যোগ নিয়েছে। তবে, তাদেরকে মিডিয়ায় কথা বলতে বাধা দেওয়া হলে দুটি সমস্যার সৃষ্টি হবে। প্রথমত, নার্সরা যদি পিপিই না পেয়ে থাকেন তারপরও তারা কথা বলতে পারবেন না। দ্বিতীয়ত, এটি নার্সদের মধ্যে ভীতি তৈরি করবে এবং তাদের প্রকৃত সেবাপ্রদান থেকে তারা নিজেদেরকে দূরে রাখবে।

তিনি আশা করেন, আগামী রবিবার নার্সদের সংশ্লিষ্ট সমিতিগুলো ডিজিএনএম পরিদর্শন করবে এবং নিজেদের প্রয়োজনে স্বতন্ত্রভাবে নার্সের কথা বলা না হলেও অন্তত সংগঠনের কথা বলার জন্য অনুমতি নেবে।

নার্সিং অ্যান্ড মিডওয়াইফারি অধিদফতরের মহাপরিচালক (ডিজি) সিদ্দিকা আক্তার বলেন, বাংলাদেশের সরকারি চাকরিবিধি অনুযায়ী সরকারি কর্মচারীরা যখন চাইবে তখনই মিডিয়াতে কথা বলতে পারবে, এমনটি অনুমোদন করে না।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত