x

এইমাত্র

  •  করোনা সঙ্কটে কর্মস্থলে অনুপস্থিত:ফেঁসে যাচ্ছেন ১১ কর্মকর্তা
  •  করোনা: বাংলাদেশে শুধু বয়স্ক নয়, ঝুঁকিতে সব বয়সীরাই
  •  বিএসএমএমইউ’র অধ্যাপক ও মেয়ে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত
  •  লকডাউনের মধ্যে বিয়ে করে বরখাস্ত হলেন সরকারি কর্মকর্তা
  •  করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘন্টায় আরও ৬ জনের মৃত্যু, মৃতের সংখ্যা ২৭

মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতে রাজি হয়েছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশ : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৩:৪৪

বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতে মিয়ানমার রাজি হয়েছে জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন বলেছেন, মিয়ানমার অত্যন্ত কনজারভেটিভ। তারা কারও কথা শোনে না। তবে আশার কথা হলো তারা বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতে রাজি হয়েছে।

বুধবার (১৮ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টায় রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের মানিক মিয়া মিলনায়তনে একটি সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা জানান।

তিনি বলেন, আশার কথা হলো, মিয়ানমার তাদের লোকগুলোকে ফেরত নিতে রাজি হয়েছে। ১৯৭৮ কিংবা ১৯৯২ সালেও তারা আলোচনার মাধ্যমে তাদের লোকদের ফেরত নিয়েছিল। তবে এবার সংখ্যাটা অনেক বেশি। ১৯৯২ সালে ২ লাখ ৫৩ হাজার ছিল। তারমধ্যে ২ লাখ ৩০ হাজার চলে যায়। এবার ১৩ লাখ। আমরা তাদের সঙ্গে আলোচনা করছি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মিয়ানমার যাদের উপর নির্ভরশীল তারা বাংলাদেশকে সহযোগিতা করার আশ্বাস দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চীন সফরকালে সে দেশের প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতির সঙ্গে কথা বলেছে। তারা সবাই এক বাক্যে স্বীকার করেছেন রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবর্তন অবশ্যই প্রয়োজন। রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে চীন অবশ্যই বাংলাদেশকে সহযোগিতা করবে।

ড. একে আব্দুল মোমেন আরও বলেন, রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী অত্যন্ত ভীতু প্রকৃতির, তারা তাদের সরকারকে বিশ্বাস করে না। আমরা মিয়ানমারকে কিছু শর্ত দিয়ে বলেছি আপনারা রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে নিয়ে গিয়ে দেখান, তাদের নাগরিকত্ব দেন এবং তাদের স্বাধীনভাবে থাকা ও চলাফেরা করার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত