x

এইমাত্র

  •  নাইক্ষ্যংছড়ির মিয়ানমার সীমান্তবর্তী এলাকায় বিজিবির হাই অ্যালার্ট
  •  করোনায় সারা বিশ্বে মৃতের সংখ্যা ৩ লাখ ৯১ হাজার ৯৯৭ জন
  •  করোনায় বিশ্বজুড়ে আক্রান্ত ৬৬ লাখের অধিক, সুস্থ হয়েছেন ৩২ লাখেরও বেশী
  •  গণস্বাস্থ্যের কিট ৭২ ঘণ্টার মধ্যে অনুমোদন চেয়ে লিগ্যাল নোটিশ
  •  করোনাভাইরাসঃ বাংলাদেশে আরও ৩০ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২৮২৮ জনের

ডেঙ্গু প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থায় গুরুত্ব দেয়ার পরামর্শ কলকাতার

প্রকাশ : ০৫ আগস্ট ২০১৯, ১৭:০৫

ডেঙ্গু পরিস্থিতি মোকাবিলার দুটি ধাপ উল্লেখ করে কলকাতা সিটি করপোরেশনের ডেপুটি মেয়র অতীন ঘোষ বলেছেন, ডেঙ্গু পরিস্থিতি মোকাবিলার ধাপ দুটি, এক- প্রিভেনটিভ (প্রতিরোধমূলক), দুই- কিউরেটিভ (প্রতিকারমূলক)। তবে সবচেয়ে বেশি কার্যকর এবং গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা নেওয়া।

সোমবার (০৫ আগস্ট) ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলামের সঙ্গে এক ভিডিও কনফারেন্সে তিনি এ পরামর্শ দেন।

প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা হিসেবে তিনি বলেন, এডিস মশার প্রজননস্থল আমরা খুঁজে বের করে ধ্বংস করে দেই। এর জন্য তৃণমূল পর্যায়ে ওয়ার্ড লেভেল, বোরো লেভেল বা জোন এবং সিটি করপোরেশনের কেন্দ্রীয় লেভেল; এই তিন স্তর থেকে মনিটরিং করা হয়।

এছাড়াও কলকাতার ডেপুটি মেয়র ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে তিন স্তরে মনিটরিংয়ের পরামর্শ দিয়েছেন। সেগুলো হচ্ছে ওয়ার্ড লেভেল, বোরো বা জোন লেভেল এবং কেন্দ্রীয় লেভেল।

কলকাতার মেয়র আরও বলেন, ডেঙ্গু পরিস্থিতি বিষয়ে সঠিক ধারণা থাকা দরকার। আমাদের ১৪৪টি ওয়ার্ডে একজন করে মোট ১৪৪ জন কর্মী আছেন, যাদের কাজই হচ্ছে প্রতিদিনের তথ্য নেওয়া। তারা প্রতিদিন হাসপাতাল গিয়ে নতুন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর তথ্য নেন এবং রোগীর বাসায় গিয়ে এডিস মশার প্রজননস্থল খোঁজেন। পরে সেটি ধ্বংস করে দেন। আর সেভাবে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় গুরুত্ব দিয়ে কাজ করা হয়। 

ভিডিও কনফারেন্সে আরও উপস্থিত ছিলেন, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মমিনুর রহমান মামুন, প্রধান বর্জ্য কর্মকর্তা ক্যাপ্টেন মঞ্জুর হোসেন, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল হাই, সচিব রবীন্দ্র বড়ুয়া, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সচিব হেলালুদ্দীন, প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের মহাপরিচালক খলিলুর রহমান, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের কীটতত্ত্ববিদ কবিরুল বাশারসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত