x

এইমাত্র

  •  করোনা: ৭৩ হাজার কোটি টাকার আর্থিক সহায়তা প্যাকেজ ঘোষণা
  •  করোনায় অর্থনীতির প্রভাব নিয়ে সতর্ক করলেন প্রধানমন্ত্রী
  •  তাবলীগ জামাতে আসা মুসল্লি করোনা আক্রান্ত, পৌর এলাকা লকডাউন
  •  আইসোলেশন শেষে স্ত্রী-কন্যার কাছে ফিরেছেন সাকিব
  •  যুক্তরাষ্ট্রের নতুন রেকর্ড, একদিনে প্রাণ গেল ১২২৪ জনের

পিতাকে নিয়ে পুত্রের লেখা

প্রকাশ : ২৩ জুলাই ২০১৯, ১২:৪৭

বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী বঙ্গতাজ তাজউদ্দীন আহমদের ৯৪তম জন্মদিন আজ। ১৯৭১ সালে তাজউদ্দীন আহমদ নেতৃত্ব দিয়েছেন মহান মুক্তিযুদ্ধে। সারা বিশ্বের মানুষের কাছ থেকে নিয়ে এসেছেন বাংলার মানুষের জন্য সমর্থন। ছিলেন প্রবাসী সরকারের প্রধানমন্ত্রী। পরবর্তীতে স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী হয়েছিলেন তিনি।

১৫ আগস্ট, ১৯৭৫ পরবর্তী সময়ে ছিলেন জেলে বন্দী। জেলে বন্দী থাকাকালীন অবস্থায় জাতীয় আরোও তিন নেতার সাথে হত্যা করা হয়েছিল এই জাতীয় নেতাকে।

২৩ জুলাই তার জন্মদিন। তার জন্মদিনে তার পুত্র সাবেক প্রতিমন্ত্রী সোহেল তাজ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লিখেছেন। পিতাকে নিয়ে লেখা সোহেল তাজের পুরো স্ট্যাটাসটি পাঠকের জন্য হুবহু তুলে দেওয়া হলো। 

আজ, ২৩ জুলাই, ২০১৯, বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী ও মহান মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্বদানকারী বঙ্গতাজ তাজউদ্দীন আহমদের ৯৪তম জন্ম বার্ষিকী।

এখানে আমি আমার আগে লেখা একটি সংক্ষিপ্ত লেখনী দিলাম:

আমাদের সবারই একটি পরিচয় আছে-আমরা সবাই কারো না কারো সন্তান। আমাদের বাবা/মা আছে, দাদা/দাদি, নানা/নানী আছে। তেমনি একটি দেশের পরিচয় খুঁজে পাওয়া যায় তার ইতিহাসে। বাংলাদেশের জন্মের ইতিহাস হচ্ছে একটি গৌরবের ইতিহাস, মুক্তি ছিনিয়ে আনার ইতিহাস, মুক্তিযুদ্ধ করে তিরিশ লক্ষ্য শহীদ সহ অসংক্ষ মুক্তিযোদ্ধার জীবনের বিনিময়ে স্বাধীনতা ছিনিয়ে আনার ইতিহাস। প্রশ্ন হচ্ছে, কেন সেদিন বাংলার যুবকরা এমনকি এগারো-বারো বছর বয়েসের যুবকরা স্বেচ্ছায় নিজের জীবন বাজি রেখে যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল?

আজকে আমরা যদি কোন মুক্তিযোদ্ধা কে জিজ্ঞেস করি তিনি কেন নিজের জীবন বাজি রেখে সেদিন মুক্তিযুদ্ধে যোগ দিয়েছিলেন-তিনি নির্দ্বিধায় বলবেন মুক্তির জন্য, স্বাধীনতার জন্য, সোনার বাংলার স্বপ্নের জন্য।

সোনার বাংলার স্বপ্ন? কি এমন স্বপ্ন এটা যার জন্য জীবন দিতে তারা প্রস্তুত ছিলেন? এটা কি কোন সোনা দিয়ে তৈরী ঘর বাড়ি/দালান কোঠা?

উত্তরে তিনি নির্দ্বিধায় বলবেন, যে সোনার বাংলার স্বপ্ন হচ্ছে এমন একটা সুন্দর দেশ যেখানে সকল মানুষ- নারী-পুরুষ, গরিব-ধনী, ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সমান অধিকার নিয়ে নিরাপদে শান্তিপূর্ণ ভাবে তাদের স্বাভাবিক জীবন যাপন করতে পারবে। এমন একটি স্বপ্নের দেশ যেখানে একটি মানুষ খাদ্যের অভাবে মারা যাবে না। এমন একটি দেশ যেখানে একটি মানুষ বিনা চিকিৎসায় মারা যাবে না। এমন একটা সোনার বাংলা যেখানে আমাদের সন্তানরা স্কুল কলেজ মাদ্রাসায় নির্দ্বিধায় নিরাপদে শিক্ষা অর্জন করতে পারবে। এমন একটি সমাজ ব্যবস্থা যেখানে প্রাধান্য দেয়া হবে মেধাকে, যেখানে সবাই পাবে ন্যায় বিচার, আইন হবে সবার জন্য সমান, যেখানে দুর্নীতি, দলীয়করণ কোন স্থান পাবে না।

তিনি বলবেন এই স্বপ্ন দেখিয়েছিলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু আর এই স্বপ্ন অর্জনের লক্ষে সেদিন মহান মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন বাংলাদেশের প্রথম প্রধান মন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদ।

শুভ জন্মদিন বঙ্গতাজ-তোমাকে ধন্যবাদ।

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত