x

এইমাত্র

  •  গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় নতুন সংক্রমিত ৩৩৬০ জন, মৃত ৪১ জন
  •  বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নরের চাকরির সময়সীমা বাড়িয়ে বিল পাস
  •  মহামারি করোনাভাইরাসে বিশ্বব্যাপী মৃত্যু ৫ লাখ ৫২ হাজার, আক্রান্ত ১ কোটি ২১ লাখেরও বেশি
  •  রিজেন্টের প্রতারণা : সাহেদের প্রধান সহযোগী গ্রেফতার
  •  শিগগিরই কলেজে ভর্তি শুরু হবে: সংসদে শিক্ষামন্ত্রী

মিন্নির রিমান্ড চাইবে পুলিশ

প্রকাশ : ১৭ জুলাই ২০১৯, ১৩:২৭

বরগুনার আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলার প্রধান সাক্ষী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নিকে আজ বুধবার (১৭ জুলাই) দুপুরে আদালতে হাজির করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করবে পুলিশ। বরগুনা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. হুমায়ুন কবির আজ সকালে এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) মিন্নিকে জিজ্ঞাসাবাদের পর হত্যা মামলায় জড়িত থাকার অভিযোগ এনে রাত সাড়ে নয়টায় গ্রেপ্তারের ঘোষণা দেয় পুলিশ।

মিন্নিকে আজ বুধবার দুপুরের যেকোনো সময় আদালতে হাজির করা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশের একটি সূত্র। আদালতে হাজির করে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ডের আবেদন করবে। তবে কত দিনের রিমান্ড চাওয়া হবে, সে বিষয়ে তিনি কিছু বলতে চাননি।

মিন্নিকে গ্রেপ্তারের ঘোষণা দেওয়ার সময় এসপি মারুফ হোসেন বলেন, মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত মিন্নিকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। আট ঘন্টা জিজ্ঞাসাবাদ শেষে হত্যাকাণ্ডের ঘটনার সঙ্গে মিন্নির সংশ্লিষ্টতা পাওয়ায় তাকে এই মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। দীর্ঘ সময় ধরে প্রাপ্ত তথ্য পর্যালোচনা ও বিশ্লেষণ করে হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে তার সংশ্লিষ্টতা প্রাথমিকভাবে প্রতীয়মান হওয়ায় মামলার মূল রহস্য উদঘাটন এবং সুষ্ঠু তদন্তের জন্য মিন্নিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এর আগে, চাঞ্চল্যকর এই হত্যা মামলার বাদী নিহত রিফাত শরীফের বাবা দুলাল শরীফ ও মামলার প্রধান সাক্ষী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নির পরস্পরকে দোষারোপ করে পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন ও নয়ন বন্ডের মা শাহিদা বেগমের মিন্নিকে জড়িয়ে বিবৃতি দেওয়ায় এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ভিন্ন দিকে মোড় নেয়।

উল্লেখ্য, গত ২৬ জুন বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে প্রকাশ্যে রিফাত শরীফকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। হত্যাকাণ্ডের পরের দিন রিফাত শরীফের বাবা আবদুল হালিম শরীফ বরগুনা থানায় ১২ জনকে আসামি করে একটি মামলা করেন। এ ছাড়া সন্দেহভাজন অজ্ঞাতনামা আরও চার-পাঁচজনকে আসামি করা হয়।

এ মামলার প্রধান আসামি সাব্বির আহম্মেদ ওরফে নয়ন বন্ড ২ জুলাই পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হন। মামলার এজাহারভুক্ত ছয় আসামিসহ গতকাল পর্যন্ত ১৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের মধ্যে ১০ জন আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন।

মামলার ২ নম্বর আসামি রিফাত ফরাজীসহ বাকি তিন আসামি এখনো রিমান্ডে আছেন। তবে এই মামলার অন্যতম আসামি রিশান ফরাজীসহ বাকি পাঁচ আসামি এখনো গ্রেপ্তার হননি।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত