পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে দর্শনার্থীদের ঢল

প্রকাশ : ০৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১৬:১৭

আসাদুজ্জামান সাজু

লালমনিরহাট জেলায় এবারে ঈদের দিন বিকেল থেকেই তরুণ-তরুণী, কিশোর-কিশোরীরাসহ অনেকেই পরিবার নিয়ে ভীড় করতে থাকে দেশের বৃহত্তম সেচ প্রকল্প তিস্তা ব্যারাজ, শালবন, তিনবিঘা করিডোর, বোতলের তৈরী বাড়ি, বুড়িমারী স্থল বন্দর জিরো পয়েন্ট, চা বাগান, কবি শেখ ফজলল করিমের বাড়ী, বিমান ঘাটি ও আনন্দলোক মিলিটারী ফার্মে।

ঈদের দিন থেকে শুরু করে ৩ দিন ধরে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত লালমনিরহাট জেলা ও জেলার বাইরে থেকে হাজার হাজার মানুষকে রিক্সা, ভ্যান, মটরসাইকেল, মাইক্রোবাস, বাস যোগে লালমনিরহাটের এসব স্থানগুলোতে বেড়াতে আসতে দেখা গেছে।

তিস্তা ব্যারাজ এলাকায় ঘুরে দেখার মতো সুইচ গেট, ভিআইপি রেস্ট হাউস অবসর, তিস্তা নদীর মনোরোম দৃশ্য, শালবনে বিভিন্ন জাতে গাছসহ অনেক রকম পাখি।

লালমনিরহাট জেলায় বিনোদনের জায়গা বলতে হাতীবান্ধা উপজেলার তিস্তা ব্যারাজ, শালবন, পাটগ্রাম উপজেলার দহগ্রাম-আঙ্গরপোতা ছিটমহল (তিন বিঘা করিডোর), বুড়িমারী জিরো পয়েন্ট (চেক পোস্ট) , কালীগঞ্জ উপজেলায় কবি বাড়ী ও বোতলের বাড়ি, লালমনিরহাট সদর উপজেলায় বিমান ঘাটি ও আনন্দলোক মিলিটারি ফার্ম থাকলেও এসব এলাকার মধ্যে তিস্তা ব্যারাজ, আনন্দলোক মিলিটারি ফার্ম ছাড়া অন্য জায়গায় নিরাপত্তার কোন ব্যবস্থা নেই।

রংপুর থেকে বেড়াতে আসা রোজিনা আক্তার জানান, ঈদ উপলক্ষে হাতীবান্ধা আত্মীয়র বাড়িতে বেড়াতে এসেছি। বিভিন্ন স্থান ঘুরে বেড়াচ্ছি। খুব ভাল লাগছে।

এদিকে ঈদে পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে অপ্রীতিকর ঘটনা ঠেকাতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা সর্তক অবস্থায় রয়েছেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত